× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার

দুধ চুরি বেড়ে যাওয়ায়...

রকমারি

বিবিসি | ২৬ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার, ৭:৫৪

ভারতীয় রাজ্য তামিলনাডুতে গত কয়েকদিনে হঠাৎ করে দুধ চুরি বেড়ে গেছে। ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ হয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগও জানিয়েছেন।

দুধ চুরির ঘটনা বেড়ে যাওয়ার পেছনে যে কারণ তারা বলছেন, তা বেশ অদ্ভুত!

দুধ ব্যবসায়ীরা বলছেন, আগামী সপ্তাহে একটা নতুন সিনেমা আসছে, সেই জন্যই দুধ চুরি বেড়ে গেছে কদিন ধরে।

কিন্তু দুধের সঙ্গে নতুন সিনেমা আসার সম্পর্কটা কী!

কয়েক বছর ধরে নতুন দক্ষিণ ভারতীয় সিনেমা লঞ্চ হওয়ার আগে 'পালাভিষেকম' নামের এক উৎসব করতে শুরু করেছেন ফিল্ম-ভক্তরা।

হিন্দু ধর্ম অনুযায়ী দেব-দেবীর মূর্তি দুধ দিয়ে ধোয়ার প্রথাকে 'পালাভিষেকম' বলা হয়।

সেই পালাভিষেকম এখন ফিল্ম ভক্তরাও শুরু করেছেন তাঁদের প্রিয় নায়কদের সিনেমার পোস্টার বা কাট আউটের ওপরে দুধ ঢেলে।

তামিলনাডুর দুধ ব্যবসায়ী সংগঠনের সভাপতি এস এ পোন্নুস্বামী বিবিসিকে বলছিলেন, "এই প্রথাটা ভগবানের পুজোর জন্য। কিন্তু এখন ফিল্ম স্টারদের জন্যও তাদের ভক্তরা সেই একই কায়দায় দুধ ঢেলে পালাভিষেকম পালন করতে শুরু করেছে। ফিল্ম স্টারদের তো প্রায় ভগবান বানিয়ে ফেলেছে মানুষ।"

প্রিয় অভিনেতাদের কাট আউট বা ছবির পোস্টারে দুধ ঢালার জন্য নিজেদের পকেটের টাকা দিয়ে দুধ কিনছেন না ফ্যানরা। চুরি করা দুধই ঢালা হচ্ছে সিনেমার পোস্টারে।

মঙ্গলবার তামিল অভিনেতা সিলাম্বরাসনের একটি ছোট ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই দুধ চুরি ভীষণভাবে বেড়ে গেছে বলে ব্যবসায়ীদের অভিযোগ। তারা বাধ্য হয়েছেন পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করতে।

ওই ভিডিওতে জনপ্রিয় ওই অভিনেতা তার ভক্তদের কাছে আবেদন করেছিলেন যে পয়লা ফেব্রুয়ারি তার অভিনীত যে নতুন ছবিটি রিলিজ হবে, তার আগে যেন ছবির পোস্টারে দুধ ঢেলে উৎসব পালন করা হয়।

তারপর থেকেই দুধের দোকানের সামনে রাখা ট্রে থেকে প্যাকেট চুরি শুরু হয়েছে।

"তবে দুধ চুরির দায় যাতে তাদের ওপরে এসে না পরে, তার জন্য ফ্যানক্লাবগুলি নিজেদের ফেসবুক পাতায় পোস্টও করছে। তামিল সুপারস্টার রজনীকান্ত আর কমল হাসানের সাহায্যও চেয়েছি আমরা। কিন্তু তাও দুধ চুরি বন্ধ করা যাচ্ছে না," বলছিলেন মি. পোন্নুস্বামী।

রজনীকান্তের এক মুখপাত্র বিবিসিকে জানিয়েছেন, ফিল্ম স্টাররা তো আর ফ্যান ক্লাবগুলো পরিচালনা করেন না।
তাই তাদের কাজকর্মের দায় তাদের নিজেদেরই। অনেকবার ভক্তদের এটা করতে বারণ করা হয়েছে, কিন্তু তারা এভাবেই উৎসব পালন করতে চায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর