× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

পৃথিবীর প্রবীণতম প্রাণী

রকমারি

অনলাইন ডেস্ক | ৩ মার্চ ২০১৯, রবিবার, ৮:০০

রানী ভিক্টোরিয়ার জন্মের পাঁচ বছর আগে প্রায় ১৮৩২ সালে জন্ম নেয় জনাথন। চলতি ২০১৯ সালে ১৮৭ বছরে পা রাখতে যাচ্ছে স্থলজ প্রাণিদের মধ্যে পৃথিবীর সবচেয়ে বয়স্ক এই প্রাণী! আর মাত্র এক বৎসর পরই এটি পাবে সর্বকালের প্রবীণতম স্থলজ প্রাণির তকমা। এখন পর্যন্ত প্রবীণতম প্রাণির তালিকার শীর্ষে আছে ‘টুই মালিলা’ নামক একটি কচ্ছপ, যার বয়স হয়েছিল ১৮৮ বছর। মালিলা ১৭৭৭ থেকে ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত জীবিত ছিল।

জনাথন তার জীবদ্দশায় দুইটি বিশ্বযুদ্ধ, ফরাসী বিপ্লব, সাতজন ব্রিটিশ রাজা এবং যুক্তরাষ্ট্রের ৩৯ জন প্রেসিডেন্টের মেয়াদকাল অতিক্রম করেছে। তার জন্মের বছরই প্রথম ডাক টিকিটের প্রবর্তন হয় (১৮৪০) এবং সুউচ্চ লৌহ ভাস্কর্য আইফেল টাওয়ারের কাজ সম্পূর্ণ হয়।

তার সময় কালেই ঘটে গেছে বিশ্বের বড় বড় বৈজ্ঞানিক কর্মকা-, প্রযুক্তির অবিষ্মরণীয় অবিষ্কার। প্রথম ফটোগ্রাফি, বৈদ্যুতিক লাইটের আবিষ্কার এ সময়ের মধ্যেই হয়।
জনাথমের জন্ম হয়েছিল ভারত মহাসাগরে। তবে ১৮৮২ সাল থেকে এটি দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসগরের এসটি হেলেনা দ্বীপে অবস্থান করে আসছিল। এই দ্বীপটিই খুব সম্ভব নেপলিয়ন বোনাপোর্টের শেষ জীবনের আবাসস্থল ছিল।
১৮১৫ সালে ওয়াটালু যুদ্ধে পরাজয়ের পর সেখানে তিনি নির্বাসিত হয়েছিলেন।

জনাথনের ৫০ বছর বয়সের সময় তৎকালীন ব্রিটিশ গভর্ণর উইলিয়াম গ্রে-উইলসনকে উপহার হিসেবে দেওয়া হয়। তখন থেকেই সে গভর্নরের বাড়িতে থাকছে। ১৭৯১-৯২ সালে ইস্ট ইন্ডিয়া কম্পানি কর্তৃক নির্মিত একটি বাড়িতে বর্তমানে আরও তিনটি কচ্ছপ (ডেভিড, ইমা, ফ্রেড) নিয়ে বাস করছে জনাথন।

বিভিন্ন প্রাণিবিদ্যা বিশেষজ্ঞের মতে, এটি সিসিলির একটি মহাকায় কচ্ছপ। এটিকে একটি ব্যতিক্রমধর্মী প্রাণি বলে বিশ^াস করা হত, তবে বর্তমানে বিশ^ব্যাপী এই প্রজাতির প্রায় ৮০টি প্রাণি পাওয়া গেছে। এত দীর্ঘজীবী হওয়া স্বত্ত্বেও জনাথন এখনও আশ্চর্যজনকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ। বিশে^র প্রবীণতম এই প্রাণিটি স্বভাবত অন্ধ, তবে তীক্ষ্ম শ্রবণশক্তি সম্পন্ন এবং স্বস্থ্যকর খাবার গ্রহণে সক্ষম। এমনকি এটির যৌন শক্তিও এখন পর্যন্ত প্রবল, যা তার অভ্যন্তরীণ সুস্থতাকেই নির্দেশ করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর