× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ মে ২০১৯, রবিবার

চলে গেলেন হলিউড কিংবদন্তি ডরিস ডে

বিনোদন

অনলাইন ডেস্ক | ১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার, ৩:৫৩

হলিউডের কিংবদন্তি অভিনেত্রী ডরিস ডে আর নেই। গতকাল সোমবার ৯৭ বছর বয়সে তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। এক বিবৃতিতে ডরিস ডে অ্যানিম্যাল ফাউন্ডেশন জানায়, ডরিস সোমবার ক্যালিফোর্নিয়ার কারমেল ভ্যালিতে তার নিজ বাড়িতে মারা যান।
এতে বলা হয়, সম্প্রতি জটিল নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার আগ পর্যন্ত ডরিসের স্বাস্থ্য তার বয়সের তুলনায় খুবই ভাল ছিল।
তিনি হতে চেয়েছিলেন নৃত্যশিল্পী। কিন্তু ১২ বছর বয়সে তাদের গাড়িটি ট্রেনের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে গিয়ে পায়ে প্রচণ্ড আঘাত পান।
তবে কোনোভাবেই তিনি দমে যাওয়ার পাত্রী নন। এরপর থেকে গান শেখা শুরু করেন। প্রথমে তিনি রেডিওতে গান। পরে নাইটক্লাবে গাইতে শুরু করেন। এরপর অভিনয়ে আসেন গুণী এ শিল্পী। বিভিন্ন জনপ্রিয় ও বিখ্যাত চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সর্বকালের সেরা অভিনেত্রীদের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছেন ডরিস। গায়িকা থেকে নায়িকায় রূপান্তরিত হওয়া ডরিস অভিনীত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘ক্যালামিটি জেন’, পিলো টক এবং কে সারা সারা- এর মতো বিভিন্ন বিখ্যাত ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র।
হলিউডের আরেক তারকা রক হাডসনের সঙ্গে জুটি বেঁধে ডরিস গত শতাব্দীর ৫০ ও ৬০’র দশকে উপহার দিয়েছেন একের পর এক বক্স অফিস হিট সিনেমা।
১৯৬০ সালে ‘পিলো টক’ চলচ্চিত্রের জন্য অস্কার মনোনয়ন পেলেও এই পুরস্কার যেটা হয়নি ডরিসের।
২০০৪ সালে ডরিসকে প্রেসিডেনশিয়াল মেডেল এবং ২০০৮ সালে গ্র্যামিতে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত করা হয় ডরিসকে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর