× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ জুলাই ২০১৯, বুধবার

সংস্কৃতি খাতের বাজেট নিয়ে বিশিষ্টজনদের হতাশা

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, ৮:৩১

বৃহস্পতিবার বিকালে জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জাতীয় বাজেট উত্থাপন করেন। এবারের বাজেটের আকার ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা, যা জিডিপির ১৮ দশমিক ১ শতাংশ। এর মধ্যে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের জন্য বাজেট প্রস্তাব করা হয়েছে ৫৭৫ কোটি টাকা। গত বছর প্রস্তাবিত বাজেট ছিল ৫১০ কোটি এবং সংশোধিত বাজেট ছিল ৬২৫ কোটি টাকা। বৃহস্পতিবার বাজেট ঘোষণার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছেন সংস্কৃতিকর্মীরা। সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার বলেন, দেশব্যাপী শুদ্ধ সংস্কৃতিচর্চার প্রসার ঘটাতে হলে এ খাতে বরাদ্দ বাড়াতে হবে। সরকারের কাছে আমাদের দাবি, মূল বাজেটের এক শতাংশ সংস্কৃতি খাতে বরাদ্দ করা হোক। নাট্যজন মামুনুর রশীদ বলেন, মূল বাজেটের অন্তত ১ শতাংশ সংস্কৃতি খাতে বরাদ্দ দেয়ার দাবি জানাই।
সরকার নিশ্চয়ই চায় না, আমাদের সংস্কৃতি ধ্বংস হোক। সংস্কৃতি বান্ধব সরকারের কাছে আমরা এই বাজেট
আশা করি না। চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব ও সংসদ সদস্য ফারুক বলেন, চলচ্চিত্র খাতের বরাদ্দ আরেকটু বাড়ানো যেত। এবার যেটা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে সেটা সামগ্রিক বরাদ্দের তুলনায় সামান্যই বলবো। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ বলেন, এই বাজেট দেখে আমরা হতাশ। সংস্কৃতিখাতে মূল বাজেটের ১ শতাংশ করার দাবি ছিল আমাদের। আমরা চাইবো আমাদের সাংস্কৃতিক কর্মীদের প্রত্যাশা সংস্কৃতি খাতে বাজেট বাড়ানো হোক। এদিকে গতকাল বিকাল পাঁচটায় দেশব্যাপী প্রতিবাদ সভা ডাকে বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন। এর আগে সকালে বিষয়টি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।  সেখানে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেন সংগঠনটির নেতারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Rose
১৭ জুন ২০১৯, সোমবার, ২:১৯

কম নাকি 500 কোটি টাকা । পাবলিক ওই টাকা দিতে অনেক কস্ট করে । হতাশ হওয়ার কিছু ই নাই সবই তো বানিজ্যিক

অন্যান্য খবর