× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ জুলাই ২০১৯, বুধবার
আলাপন

‘নাটকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হোক’

বিনোদন

এন আই বুলবুল | ১৯ জুন ২০১৯, বুধবার, ৯:৩৫

ছোট পর্দার শিল্পীদের সংগঠন ‘অভিনয় শিল্পী সংঘ’র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ২১শে জুন। ২০১৯-২০২১ মেয়াদের কার্যনির্বাহী কমিটিতে নির্বাচিত হতে লড়ছেন ছোট পর্দার একঝাঁক জনপ্রিয় মুখ, যারা প্রত্যেকেই অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত। এবারের নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করছেন আহসান হাবিব নাসিম। গেল নির্বাচনে একই পদে নির্বাচন করে তিনি বিজয়ী হন। দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচন করা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে এ অভিনেতা বলেন, গেল দুই বছরে বিশটির বেশি কাজ আমরা করেছি। এরমধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য কিছু হলো-অভিনয় শিল্পী সংঘের অফিস নিয়েছি, সংগঠনটির নিবন্ধন করেছি, ত্রিপক্ষিয় চুক্তি করেছি, বেশ কয়েকজন শিল্পী অসুস্থ আছেন তাদের আমরা সহযোগিতা করেছি। এছাড়া সরকারের কাছে আমাদের কিছু দাবি পেশ করেছি। কিন্তু সেগুলো এখনো পূরণ হয়নি।
আমি এবার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি আমার অসম্পূর্ণ কাজগুলো শেষ করতে। কারণ আমাদের এখনো অনেক কিছু করতে হবে বলে আমি মনে করি। গেল দুই বছরে আপনাদের ব্যর্থতা কি ছিল? নাসিম বলেন, সফলতা ব্যর্থতা নিয়েই একটি সংগঠনের কার্যক্রম চলে। আমাদের সফলতার বাইরে ব্যর্থতাও আছে এটি অস্বীকার করার কিছু নেই।

এরমধ্যে একটি হলো আমাদের ওয়েব সাইটটি স্ট্রং করা হয়নি। যেখানে প্রত্যেক শিল্পীর একটা বায়োডাটা থাকবে। ১৯৯৮ সাল থেকে এই সংগঠন। কিন্তু সেই সময়ের সব তথ্যাদি আমরা সংরক্ষণ করতে পারিনি। এই রকম আরও বেশ কিছু কাজ আমাদের করা হয়নি। সেগুলো ব্যর্থতার মধ্যেই পড়ে। দ্বিতীয়বার জয়ের ব্যাপারে কতটুকু আশাবাদী? এই প্রসঙ্গে নাসিম বলেন, এখন পর্যন্ত আমার কার্যক্রম নিয়ে কারো কাছে সমালোচনা শুনিনি। বারবারই সংগঠনের জন্য কাজ করতে চেয়েছি। সাধ্যমত চেষ্টা করেছি শিল্পীদের পাশে থাকতে। সেই দিক থেকে শিল্পীরা যদি আমাকে যোগ্য মনে করেন তাহলে নির্বাচিত করবেন। অনেকেই বলছেন এবারের নির্বাচনে ব্যস্ত শিল্পীদের অংশগ্রহণ নেই? এটিকে কিভাবে দেখছেন? নাসিমের ভাষ্য, এটা একেবারেই ভুল কথা। অনেক ব্যস্ত শিল্পী এবার নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। আনিসুর রহমান মিলন, নাদিয়া আহমেদ, মমসহ অনেকে নির্বাচন করছেন।

কিন্তু যারা নির্বাচন করছেন না সেটা তাদের ব্যাপার। একটি নির্বাচনে তো সবাই অংশগ্রহণ করে না। তাই বলে বিষয়টা এমন নয়, তারা নির্বাচনে নেই। নির্বাচনের বিষয়ে তারা যথেষ্ট সহযোগিতা করছেন। সরকারের কাছে আপনাদের প্রত্যাশা কি? এই প্রশ্নের উত্তরে নাসিম বলেন, আমাদের নাটকের বাজার এখন অনেক বড়। চলচ্চিত্র থেকে কোনো অংশে কম নয়। এখানে অনেক গুণী অভিনেতা-অভিনেত্রী আছেন। তবে তারা কাজের কোনো স্বীকৃতি পান না। আমরা চাই নাটকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হোক। এবার আপনার ব্যস্ততা প্রসঙ্গে আসি। অভিনয়ে এখন ব্যস্ততা কেমন? নাসিম বলেন, ঈদের পর এখনো কোনো শুটিং করিনি। নির্বাচনের ব্যস্ততার কারণে শুটিং থেকে দূরে আছি। তবে হাতে দুটি ধারাবাহিক আছে। এরমধ্যে একটি হলো এজাজ মুন্নার ‘শহরালী’ এবং অন্যটি রওনক হাসানের ‘বিবাহ হবে’। ‘শহরালী’ ধারাবাহিকটি খুব শিগগির প্রচারে আসবে। এখানে আমার চরিত্রটি দারুণ।

গল্পে দেখা যাবে, আমি একটি কোম্পানিতে চাকরি করি। কিন্তু আমার উদ্ভট উদ্ভট আইডিয়ার কারণে চাকরি চলে যায়। এদিকে সারা বিশ্ব এখন বিশ্বকাপ ক্রিকেট নিয়ে মেতে আছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমিদের মধ্যে বিশ্বকাপের উম্মাদনা অনেক। বিশ্বকাপ নিয়ে নাসিমের ভাবনা জানতে চাইলে বলেন, বৃষ্টির কারণে এবার খেলায় ধারাবাহিকতা নষ্ট হচ্ছে। তবে বাংলাদেশ দারুণ খেলছে। একটি ম্যাচে বাংলাদেশের পরাজয় ঘটেছে। আমি বলবো সেটি আমাদের ভাগ্যে ফেভার করেনি। তবে এটি সত্যি, টাইগাররা তাদের সর্বোচ্চ দিয়ে খেলে যাচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর