× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রবিবার

ঢামেকে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকায় ওপেন হার্ট সার্জারি

শরীর ও মন

স্টাফ রিপোর্টার | ৭ জুলাই ২০১৯, রবিবার, ৮:১৩

এখন থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওপেন হার্ট বা বাইপাস সার্জারি করা যাবে। এই সার্জারি করতে ব্যয় হবে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। আজ  ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওপেন হার্ট বা বাইপাস সার্জারির জন্য কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগের উদ্বোধনকালে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক একথা বলেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল-২ (নতুন ভবন)-এর তৃতীয় তলায় কার্ডিওলজি বিভাগের পশ্চিম পার্শ্বে কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগটি চালু করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, এখন থেকে ডিএমসিতে শুধু কার্ডিয়াক সার্জারিই হবে না, হবে ভাস্কুুলার সার্জারিও। এ বিভাগ চালুর মধ্য দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীরা পূর্ণাঙ্গ চিকিৎসা সেবা পাবেন। এখন থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বাইপাস সার্জারি করা যাবে জানিয়ে তিনি বলেন, এই সার্জারি করতে ব্যয় হবে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা প্রদানের প্রেক্ষিতে অত্যাধুনিক একটি পূর্ণাঙ্গ কার্ডিয়াক সার্জারি ও ভাস্কুলার সার্জারি তৈরি করা হয়েছে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রাইভেট হাসপাতালে বাইপাস সার্জারী করতে ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা ব্যয় হয়। বিদেশে আরও বেশি। সেখানে ঢামেকে এই বিভাগটি চালু হওয়ায়, এখানে খরচ হবে মাত্র ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। আমরা দরিদ্র মানুষের কথা চিন্তা করেই এই ব্যবস্থা নিয়েছি।  জাহিদ মালেক বলেন, রোগীদের আধুুনিক সেবার প্রায় সব বিভাগই বিদ্যমান এই ঢাকা মেডিকেলে। তবে কার্ডিয়াক সার্জারি ও ভাস্কুলার সার্জারির মতো অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিভাগের অভাব দীর্ঘদিন ধরে অনুভূত হচ্ছিল। সেই প্রেক্ষিতে ঢাকা মেডিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী একটি অত্যাধুনিক পূর্ণাঙ্গ কার্ডিয়াক সার্জারি ও ভাস্কুুলার সার্জারি বিভাগ চালুর ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।  হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাছির উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব শেখ ইউসুফ হারুন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. খান মোহাম্মদ আবুল কালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
md.Mostafa haroon
১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ৭:৫০

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মহোদয়ের এটি একটি যুগান্তকারী সঠিক সিদ্ধান্ত। বাংলাদেশের প্রতিটি সরকারি হাসপাতালে open Heart অপারেশন ইউনিট খোলার জন্য অনুরোধ করছি।অনেক দরিদ্র মানুষ গ্রাম থেকে এসে ঢাকায় থেকে চিকিৎসা করাতে সক্ষম হবেনা।কারন রোগীর সাথে আসা আত্বীয়স্বজন ঢাকায় আবাসিক হোটেলে থেকে, হোটেল থেকে খাবার কেনার মত যোগ্যতাও থাকেনা।

mohammed younus
১০ জুলাই ২০১৯, বুধবার, ৩:০৫

all good

Selina
৭ জুলাই ২০১৯, রবিবার, ৭:৩৩

Very good initiative.PG national cardiovascular diseases institute may extend the facility.

অন্যান্য খবর