× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার

ভারতে শিশু ধর্ষণের অভিযোগের ৯৬ শতাংশেরই কোনও বিচার হয়নি

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৩ জুলাই ২০১৯, শনিবার, ৯:২৮

ভারতে এই বছরের প্রথম ছয় মাসে গোটা দেশে মোট ২৪ হাজারের বেশি শিশু ধর্ষণের অভিযোগে এফআইআর নিবন্ধিত হয়েছে। অথচ এই মামলাগুলির ৯৬ শতাংশ মামলার এখনও বিচার হয়নি। মাত্র ৯১১টি মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। ভারতের সুপ্রিম কোর্ট এই তথ্য হাতে পেয়ে স্বঃপ্রণোদিত হয়ে পিটিশনারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে শিশু ধর্ষনের সুবিচারের পথ বাতলাতে আদালতে জনস্বার্থ মামলা রুজু করে বিচার শুরু করেছেন। সুপ্রিম কোর্ট দেশের ২৪টিঁ হাইকোর্ট থেকে সংগৃহীত তথ্য থেকে জানতে পেরেছে,  ২০১৯ সালের জানুযারি থেকে জুনের মধ্যে ভারতীয় ফৌজদারি বিধি এবং ২০১২ সালের প্রটেকশন অব চাইল্ড ফ্রম সেক্সুয়ার অফেনস অ্যাক্ট (পসকো) অনুযায়ী শিশু ধর্ষণের মোট ২৪২১২টি এফআইআর হযেছে। এর ৪৯ শতাংশ (১১৯৮১টি) ক্ষেত্রে তদন্ত চলছে। ৪৮৭১টি ক্ষেত্রে আদালতে তদন্ত রিপোর্ট জমা পড়েছে। কিন্তু সেগুলির এখনও বিচার শুরু হয়নি।
৬৪৪৯টি ক্ষেত্রে আদালতে বিচার শুরু হলেও তা এখনও সম্পূর্ণ হয়নি। মাত্র ৯১১টিঁ ক্ষেত্রে বিচারের রায় ঘোষণা করা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি দীপক গুপ্ত ও বিচারপতি অনিরদ্ধ বসুর বেঞ্চ শিশু ধর্ষণের বিচারে শ্লথ গতি এবং তদন্ত শেষ না হওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তারা এদিন কি ধরণের নির্দেশ রাজ্য এবং হাইকোর্টগুলিকে পাঠানো দরকার সে সম্পর্কে প্রবীণ আইনজীবী ভি গিরি সহযোগিতা চেয়েছেন। দ্রুত বিচারের জন্য অতিরিক্তি আদালত তৈরি, বিচারবিভাগীয় কর্মী নিয়োগ, বিশেষ তদন্ত দল গঠন, ভিডিও কনফান্সের সুবিধা দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে কিনা সেদিকগুলিও পর্যবেক্ষণের আওতয়য আনার কথা বলেছেন। আইনজীবী গিরিকে সোমবারের মধ্যেই তার পরামর্শ জানাতে বলা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট স্বীকার করেছে, বিচারের দীর্ঘসূত্রিতার ফলে ধর্ষণের শিকার হয়েছে যারা তাদের দীর্ঘসময় ধরে গ্লানিতে ভুগতে হচ্ছে। আইনজীবীদের মতে, সুপ্রিম কোর্টের এই উদ্যোগ শিশু ধর্ষণের মামলার বিচারের ক্ষেত্রে ফৌজদারি বিধির আমূল সংস্কারের পথ প্রশস্ত করবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর