× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ২৬ আগস্ট ২০১৯, সোমবার

বেকার হোস্টেলে বঙ্গবন্ধুর নতুন প্রতিকৃতি বসল

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৩ আগস্ট ২০১৯, শনিবার, ৮:১১

দীর্ঘ ৮বছর পর কলকাতায় বেকার হোস্টেলে বঙ্গবন্ধু স্মৃতিকক্ষের সামনে থেকে বঙ্গবন্ধুর বিকৃত মূর্তি সরিয়ে নতুন মূূর্তি বসানো হয়েছে। আজ শনিবার সকালে এই নতুন মূর্তির আবরণ উন্মোচন করেছেন বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়নমন্ত্রী তাজুল ইসলাম। পরে তিনি বঙ্গবন্ধু স্মৃতিকক্ষটি ঘুরে দেখেছেন। এই অনুষ্ঠানে তাজুল ইসলাম ছাড়াও ছিলেন বাংলাদেশের স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য, পশ্চিমবঙ্গের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী জাভেদ খান, কলকাতাস্থ বাংলাদেশের উপহাইকমিশনার তৌফিক হাসান ও উপ হাইকমিশনের অন্যান্য আধিকারিকরা।  বেকার হোস্টেলের ছাত্ররাও এদিন উপস্থিত ছিলেন। নতুন এই আবক্ষ মূর্তিটি তৈরি করেছেন বাংলাদেশের ভাস্কর লিটন পাল রনি। কলকাতার নিউমার্কেটের কাছে ৮ স্মিথ  লেনে সরকারি এই বেকার হোস্টেলটি অবস্থিত। ইসলামিয়া কলেজের ছাত্র হিসেবে ১৯৪৫-৪৬ সালে বঙ্গবন্ধু এই হস্টেলের ২৪ নম্বর কক্ষের আবাসিক ছিলেন। ইসলামিয়া কলেজের বর্তমান নাম এখন মৌলানা আজাদ কলেজ।
বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধে ১৯৯৮ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উদ্যোগে বেকার হোস্টেলের ২৩ ও ২৪ নম্বর কক্ষ নিয়ে গড়া হয় বঙ্গবন্ধু স্মৃতিকক্ষ। এ স্মৃতিকক্ষে রয়েছে বঙ্গবন্ধুর ব্যবহৃত খাট, চেয়ার, টেবিল ও আলমারি। ১৯৯৮ সালের ৩১ জুলাই বঙ্গবন্ধু স্মৃতিকক্ষের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের তৎকালীন উচ্চশিক্ষামন্ত্রী অধ্যাপক সত্যসাধন চক্রবর্তী। আর ২০১১ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের তৎকালীন পররাষ্ট্র মন্ত্রী দীপু মনি স্মৃতি কক্ষের সামনে বঙ্গবন্ধুর একটি আবক্ষ মূর্তির আবরণ উন্মোচন করেছিলেন। সেই অনুষ্ঠানেই বঙ্গবন্ধুর বিকৃত মুর্তি দেখে উপস্থিত সকলেই সমালোচনায় মুখর হয়েছিলেন। অনেকে বঙ্গবন্ধু অনুরাগী দ্রুত মূর্তিটি পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছিলেন। আসলে কলকাতার এক ভাস্করের তৈরি সেই মূর্তিটি বঙ্গবন্ধুর চেহারার সঙ্গে আদৌ সঙ্গতিপূর্ণ ছিল না। তবে এবারের মূতিটিও আগের মূর্তির আদলেই তৈরি হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর