× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ আগস্ট ২০১৯, শনিবার

ভ্যানচালক ফুটবলার শিহাবের পাশে আমিনুল

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ৯ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার, ৯:৩৩

২০১৭ সালে জাতীয় স্কুল ফুটবলে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয় শিহাব উদ্দিন। কিন্তু পারিবারিক অসচ্ছলতার কারণে পড়াশোনা বন্ধ করে ভ্যান চালিয়ে সংসার চালাচ্ছিল এ কিশোর ফুটবলার । তবে শিহাবকে আর ভ্যান চালাতে হবে না। গণমাধ্যমে শিহাবের খবর প্রকাশিত হওয়ার পর বিষয়টি বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল হকের নজরে আসে। শিহাব উদ্দিনের দায়িত্ব নিয়েছেন সফল গোলরক্ষক আমিনুল হক। পাবনা জেলার সাঁথিয়া উপজেলায় আলোকদিয়া গ্রামে শিহাবের প্রতিভা বিকাশে তার পড়ালেখার এবং খেলা সম্পৃক্ত যাবতীয় খরচ বহন করবেন আমিনুল। সাবেক ফুটবলার আমিনুল বলেন, ‘আমি শিহাবের পড়াশোনার দায়িত্ব নিলাম। আমি চাই সে যেন দেশসেরা ফুটবলার ও ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে ওঠে।’ গত বুধবার আমিনুল শিহাবের বাড়িতে যান।
সেখানে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে শিহাবের হাতে অনুদানের অর্থ তুলে দেন আমিনুল হক। প্রতি মাসের পাঁচ তারিখের মধ্যে শিহাবের বাড়িতে আর্থিক সাহায্য পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস দেন আমিনুল। এর আগে শিহাবের পাশে দাঁড়ায় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। বসুন্ধরা ও আমিনুলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে শিহাবের বাবা কোরবান আলী বলেন, ‘ছেলের ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন শেষ হয়ে গিয়েছিল। বসুন্ধরা কিংস ও আমিনুল ভাইয়ের কারণে শিহাবের স্বপ্ন পূরণ হওয়ার সুযোগ এসেছে।’ বাফুফের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত রেফারি ও শিহাবের ফুটবল প্রশিক্ষক রাজু আহমেদ বলেন, ‘বিভিন্ন মাধ্যমে শিহাবের জীবনের করুণ গল্পটি উঠে আসায় তার পড়ালেখা চালু রাখার ব্যাপারে পাশে দাঁড়িয়েছেন সাবেক জাতীয় ফুটবলার আমিনুল হক।
আমাদের সবার প্রত্যাশা শিহাব এখন ফুটবলার হওয়ার পাশাপাশি লেখাপড়াও চালিয়ে যাবে এবং একজন শিক্ষিত ফুটবলার হিসেবে গড়ে উঠবে।’ ২০১৭ সালে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ দিয়ে নজর টানে কিশোর ফুটবলার শিহাব। প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে উঠে আসা এই ফুটবলার স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে দেখায় অসাধারণ  নৈপুণ্য। তার পারফরম্যান্সে সাঁথিয়ার ভুলবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সারাদেশে রানার্সআপ হয়। শিহাব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে পুরস্কার নিয়েছিল। এর আগে উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে ভুলবাড়িয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন হয়। কিন্তু সপ্তম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় দারিদ্রতার কারণে তার পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যায়। আর সংসার টানতে শিহাব ভ্যান চালাতে শুরু করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর