× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার

তবু ভালো শুরুর প্রত্যাশা রিয়ালের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৭ আগস্ট ২০১৯, শনিবার, ৮:৩৬

গত মৌসুমের শেষটা ভালো কাটেনি রিয়াল মাদ্রিদের। লা লিগায় তৃতীয় হয় তারা। বাদ পড়ে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ষোলো থেকে। আর কোপা দেল রে’র সেমিফাইনালে বিধ্বস্ত হয় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বি বার্সেলোনার কাছে। এবার প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতিতেও ছন্নছাড়া পারফরম্যান্স ‘লস-ব্লাঙ্কোস’ খ্যাত দলটির। ফলে কিছুটা উদ্বেগ আর দুশ্চিন্তা নিয়ে আজ সেল্টা ভিগোর মাঠে লা লিগায় নিজেদের মৌসুম শুরু করতে যাচ্ছে রিয়াল। তবে দলের ফরাসি কোচ জিনেদিন জিদান বলেছেন, ‘আমরা একটি ভালো ম্যাচ উপহার দিতে প্রস্তুত। আমার দলে বিশ্বের সেরা সেরা খেলোয়াড় রয়েছে। এতে কোনো সন্দেহ নেই।’ ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায়। দ্বিতীয় মেয়াদে রিয়ালের কোচ হয়ে জিদান চেলসি থেকে ১৫০ মিলিয়ন ইউরোতে নিয়ে এসেছেন ইডেন হ্যাজার্ডকে। প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতি ম্যাচগুলোতে আশানুরূপ খেলতে পারেননি এই বেলজিক তারকা। তবে ক্রমাগত উন্নতি লক্ষ্য করা গেছে। বিশেষ করে সালজবুর্গ রেডবুলের বিপক্ষে হ্যাজার্ডের পারফরম্যান্স আশা দেখাচ্ছে রিয়াল ভক্তদের। ওই ম্যাচে দারুণ এক গোল করেছিলেন তিনি। হ্যাজার্ডের পাশাপাশি এ মৌসুমে রিয়ালের তুরুপের তাস হতে পারেন ‘জাপানিজ মেসি’ খ্যাত ১৮ বছর বয়সী তাকেফুসা কুবো। স্পেনের ২০ বছর বয়সী মিডফিল্ডার ব্রাহিম দিয়াজকেও রিয়ালের অন্যতম সম্ভাবনাময় খেলোয়াড় ভাবা হচ্ছে। ইনজুরির কাটিয়ে সেল্টার বিপক্ষে ম্যাচকে সামনে রেখে চলা অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন দিয়াজ। তবে মার্কো আসেনসিও, রদ্রিগো, ফারল্যান্ড মেন্ডি অনুশীলন করতে পারেননি। রক্ষণভাগের খেলোয়াড় দানি কারভাহাল গত মৌসুমে ৫টি হলুদ কার্ড দেখেন। নিয়মানুযায়ী এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়ার কথা তার। তবে গত মৌসুমের হিসাব এ মৌসুমেও জন্য প্রযোজ্য হবে কি না, সেটি সিদ্ধান্ত নেবে লা লিগা কর্তৃপক্ষ। আর গোল পোস্টের নিচে দেখা যেতে পারে অভিজ্ঞ কেইলর নাভাসকে। রিয়ালের জার্সিতে লা লিগার ১৫তম মৌসুম শুরু করতে যাচ্ছেন অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস। এখন পর্যন্ত ৪১৯ লীগ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। এ মৌসুমে নিয়মিত খেললে রামোস রিয়ালের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলা ডিফেন্ডারের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসবেন। রামোসের চেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছেন ফ্রান্সিসকো গেন্টো (৪২৭), ফার্নান্দো হিয়েরো (৪৩৯) ও ম্যানুয়েল সানচিস (৫২৩)।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর