× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার
এপির রিপোর্ট

দেশে ফিরতে অনীহা রোহিঙ্গাদের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার, ১১:১০

মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো প্রক্রিয়ায় সাড়া দিয়েছেন হাতেগোনা কয়েকটি মুসলিম রোহিঙ্গা পরিবার। বাকিরা কোনো সাড়াই দেয়নি। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক এজেন্সি ইউএনএইচসিআর এবং বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধিদের কাছে এমন মনোভাব প্রকাশ করেছে রোহিঙ্গারা। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি।  

এ বিষয়ে শরণার্থী বিষয়ক বাংলাদেশের কমিশনার আবুল কালাম মঙ্গলবার বলেছেন, বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া শরণার্থী প্রত্যাবর্তন প্রক্রিয়ায় বাছাই করা হয়েছে ১০৫৬ জনকে। তার মধ্যে মাত্র ২১টি পরিবার ফরম পূরণ করে তা জমা দিয়েছে। তারা কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তারা জানিয়েছেন ফিরে যেতে চান কিনা। এ বিষয়ে আবুল কালাম বলেন, সব পরিবারই বলেছে, তারা দেশে ফিরে যাবে না।
গত বছর ইউএনএইচসিআর, বাংলাদেশ ও মিয়ানমার একই রকম উদ্যোগ নিলে তা ব্যর্থ হয়। তখনও কোনো শরণার্থী স্বেচ্ছায় দেশে ফিরতে অস্বীকৃতি জানায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
রিপন
২১ আগস্ট ২০১৯, বুধবার, ৯:১২

কেন অনীহা, নিশ্চয়ই তা প্রকাশ করতে দেয় নি সরকার এই প্রতিবেদনে। তাতে কী? তথ্যপ্রবাহের জোয়ার রুখবে সেই সাধ্য সরকারের নেই। আমরা জানি, নাগরিকত্ব ইস্যুসহ নিরাপত্তাবিষয়ক কিছু ইস্যুর সমাধান না হলে কোন উদ্বাস্তুই ফিরে যেতে চাইবে না। বহির্বিশ্বের প্রচার মাধ্যমে বিষয়টি যথাযথভাবে বিশ্লেষিত হচ্ছে। আওয়ামি লিগ কী করে রুখবে সেসব?

অন্যান্য খবর