× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার

‘কথা বললেই ১ হাজার টাকা জরিমানা'

অনলাইন

ফুলবাড়ীয়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি | ২২ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১২:৫২

নব্বই বছরের বৃদ্ধ জয়নাল আবেদীন। লাঠি ছাড়া চলতে পারেন না। বাড়ি থেকে ৫০ গজের মধ্যেই মসজিদ। কিন্তু সেখানে তিনিসহ তার পরিবারের নামাজ পড়া নিষেধ। ১৫ সদস্যের ওই পরিবারের সঙ্গে কেউ কথা বললে এক হাজার টাকা জরিমানার ঘোষণা দিয়েছে মসজিদ কমিটি। এভাবেই সামাজিকভাবে এক ঘরে করে রেখেছে তাদের। গত শুক্রবার থেকে পরিবারটিকে এক ঘরে করে রাখা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামে।
ওদের সঙ্গে কথা বললে এক হাজার টাকা জরিমানা এমন ঘোষণা দিয়ে মসজিদ কমিটির প্রভাবশালীরা রেজুলেশ করে সই স্বাক্ষরও নিয়েছেন। বৃদ্ধ জয়নাল আবেদীনের পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ বাড়িতেই আদায় করতে হচ্ছে এখন।
জয়নাল আবেদীন বলেন, মসজিদটি আমার বাড়ি থেকে ৫০ গজ দুরে। মসজিদের শৌচাগার আমার জমিতে। শৌচাগারের চাবি ১০/১২ দিন আগে নিয়ে যান মসজিদ কমিটির ক্যাশিয়ার  হোসেন আলী। এ নিয়ে হোসেন আলীর সঙ্গে জয়নাল আবেদীনের বাকবিতন্ডা হয় হয়। তারপর গত শুক্রবার মসজিদে নামাজ পড়তে গেলে মসজিদ কমিটির সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুছ ছালামসহ কমিটির লোকজন তাকে মসজিদ থেকে বের করে দেন বলে অভিযোগ করেন জয়নাল আবেদীন।
এক ঘরে করে রাখার বিষয়টি স্বীকার করে মসজিদ কমিটির সভাপতি আব্দুস ছালাম বলেন, জয়নাল আবেদীনকে সঠিক পথে আনার জন্য এক ঘরে করে রাখা হয়েছে। ভয় দেখানোর জন্য রেজুলেশন ও সকলের স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।
ফুলবাড়ীয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ তালুকদার বলেন, সামাজিকভাবে এক ঘরে করে রাখার বিষয়ে থানায় কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান ওসি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর