× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার

বিছনাকান্দিতে দুই-ই মেলে

ষোলো আনা

মারুফ কিবরিয়া, সিলেট থেকে ফিরে | ২৩ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার, ৮:৫২
ছবিঃ সংগ্রহীত

 বিছনাকান্দি। চায়ের রাজ্য সিলেট ভ্রমণে গেলে ভ্রমণ পিয়াসীরা একবার হলেও ঢুঁ মেরে আসেন সেখানে। পিয়াইন নদীর বুক চিরে ওঠা ছোট-বড় পাথরের এই মনোরম দৃশ্য যেন চোখজুড়ায় সবার। চারপাশেই উঁচু-নিচু মেঘালয় পাহাড়। যেন প্রকৃতির সব সৌন্দর্য এখানেই। বিছানাকান্দির এই অপরূপ সৌন্দর্য যে কারো ভ্রমণকে রোমাঞ্চিত করে তোলে। পাহাড়ে হেলান দিয়ে সাদা মেঘ, মাঝে ঝর্ণাধারা। যতদূর চোখ যায় শুধু পাথর আর পাহাড়ের অপরূপ দৃশ্য।


জলধারায় ঘুরে বেড়িয়ে যে স্থানটি ভ্রমণে ভিন্নমাত্রা যোগ করে তা হলো নদীর বুক চিরে গড়ে ওঠা ছোট্ট বাজার। প্রকৃতির এই সৌন্দর্য দেখার পাশাপাশি পর্যটকদের সুযোগ থাকে কেনাকাটার। তরুণ-বৃদ্ধ অনেকেই সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত হরেক রকমের পণ্য নিয়ে বসেন। ছোট্ট এই বাজারে কি-না পাওয়া যায়! অবশ্য এই বাজারে দেশি পণ্যের চেয়ে ভারতীয় পণ্যই বেশি। যা সাধারণ বাজারগুলোর চেয়ে বেশ কমমূল্যে বিক্রি হয়। চকলেট, সাবান, শ্যাম্পু, খেলনা, কসমেটিক, আচারসহ আরো অনেক কিছু। ফলে প্রকৃতির দর্শন ও কেনাকাটা দুই-ই পূরণ হচ্ছে দর্শনার্থীদের।

পাথর আর পাহাড়ের সৌন্দর্য দেখতে আসা সাদিয়া রাশা বলেন, বিছনাকান্দিতে প্রথম না। আরো কয়েকবার এসেছি। এই সুন্দর দৃশ্য একবার দেখে কখনো মন ভরে না। আমারও তাই ঘটেছে। এ নিয়ে চতুর্থবার আসা। তবে বিছনাকান্দিতে এলেই এখানকার বাজারে একটু হলেও ঢুঁ মারি। কিছু না কিছু কিনে নিয়ে যাই। এখানে অনেক ভালো ভালো চকলেট অল্প দামে পাওয়া যায়। কিছু ভারতীয় কসমেটিকস আইটেমও পাচ্ছি। ব্যাপারটা দারুণ উপভোগ্য। ঘোরাও হলো টুকটাক কেনাকাটাও হলো। মহিম নামের এক বিক্রেতা বলেন, আমরা এখানে অনেকদিন ধরেই ব্যবসা করছি। চলকলেট, চিপ্‌স আর কিছু কসমেটিকস পণ্য আছে। বেড়াতে আসা মানুষরা কিছু না কিছু কিনে নিয়ে যায়। শুধু পণ্য বিকিকিনি নয়। এই বাজারের পাশেই রয়েছে বেশকিছু খাবারের দোকান। পর্যটকদের দুপুরের খাবারের জন্য এই বাজার সেরা স্থান। ফলে ভ্রমণ পিপাসুদের সঙ্গে করে আনতে হচ্ছে না খাবার।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর