× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার

শত্রুতার জেরে কিশোর হত্যা

বাংলারজমিন

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি | ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৮:১১

কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নে পূর্ব শত্রুতার জেরে সুলেমান (১৩) নামক এক কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ২ নারীসহ একই পরিবারের ৩ জনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় নিহত কিশোরের বড় ভাই রোববার ৮ই সেপ্টেম্বর ৫ জনের নামে কুলাউড়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের পূর্ব ফটিগুলি গ্রামের মৃত বাজিদ আলীর পুত্র কিশোর সুলেমান গত ৬ই সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে নিজ বাড়ির পাশে একটা বটগাছের নিচে বসা ছিল। এসময় লোক মারফত একই গ্রামের আনু মিয়ার বাড়িতে তাকে ডেকে নেয়া হয়। বাড়িতে যাওয়ার পর আনু মিয়ার ছেলে রেদোয়ান মিয়ার নেতৃত্বে সুলেমানকে হাত-পা বেঁধে মারপিট করা হয়। এসময় তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলেও উদ্ধারে ব্যর্থ হন। এক পর্যায়ে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মাসুক মিয়াসহ আরো লোকজন এসে সুলেমানকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। ঘটনার পরদিন ৭ই সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুলেমানের মৃত্যু হয়।
এদিকে ৮ই সেপ্টেম্বর রোববার ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে কুলাউড়া থানা পুলিশ আনু মিয়া (৪৫), তার স্ত্রী পিয়ারা বেগম (৪০) ও মেয়ে আসলিমা বেগম (১৮)কে আটক করেছে।
কর্মধা ইউনিয়নের মেম্বার মাসুক মিয়া জানান, পূর্ব শত্রুতা থাকতে পারে। আমি ছেলেকে উদ্ধার করে দ্রুত মৌলভীবাজার হাসপাতালে ভর্তি করি। এরপর সেখান থেকে ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়।
এব্যাপারে কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত ৩ আসামিকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর