× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার

নারায়ণগঞ্জে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:৪৬

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগ এনে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের একটি আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে (মামলা নং-১০৮৭/১৯)। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন। তারেক রহমান বর্তমানে যুক্তরাজ্য (লন্ডন) প্রবাসী।
আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য আকরাম হোসেন বাদল গতকাল দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিল্টন  হোসেনের আদালতে উপস্থিত হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।
এই মামলায় তিনি তারেক রহমানকে এক নম্বর আসামি করে যুক্তরাজ্য (লন্ডন) প্রবাসী আরো দুইজনকে আসামি করেছেন। মামলার অন্য দুই আসামি হলেন বিএনপি’র যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি শায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুস এবং সাধারণ সম্পাদক কাওছার এম আহম্মেদ। শুনানি শেষে আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। বাদীর পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট নূরুল হুদা।
গণমাধ্যমকে অ্যাডভোকেট নূরুল হুদা বলেন, বাদী মামলায় তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদোহিতা এবং মানহানির অভিযোগ এনেছেন। গত ১৮ই আগস্ট লন্ডনে একটি অনুষ্ঠানে তারেক রহমান বলেছেন, বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদের জাতির পিতা জিয়াউর রহমান। সেই সঙ্গে দেশের সংবিধান নিয়েও তিনি কটূক্তি করেছেন, যা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।
তারেক রহমানের এ বক্তব্যকে মানহানিকর উল্লেখ করে বাদীর আইনজীবী আরো বলেন, আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে সব নথি পর্যালোচনা করে আসামি তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন। একই সঙ্গে আগামী ১০ই ডিসেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য করা হয়েছে। মামলার বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, এই মামলার বাদী অতি উৎসাহী হয়ে নিজেকে জাহির করার জন্য এটি করেছেন। আর ম্যাজিস্ট্রেটও অতি উৎসাহী হয়ে ধারার বাইরে গিয়ে এ মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন। কারণ দণ্ডবিধি ৫০০ ও ৫০১ ধারায় স্পষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে, এ ধরনের মামলা আমলে নিলে ম্যাজিস্ট্রেট আসামিদের বিরুদ্ধে সমন জারি করতে পারবেন। কোনোভাবেই গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নয়।
বিএনপি’র এই নেতা আরো বলেন, আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহা নামে এক বাংলাদেশি নাগরিক মিথ্যা অভিযোগ করলেও তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার কোনো মামলা হয়নি দেশের কোথাও। ব্যতিক্রম শুধু বিএনপি’র ক্ষেত্রে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর