× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার
ঢাকা, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার
বেতের আঘাতে ছাত্রীর চোখ নষ্ট

শিক্ষক সাময়িক বরখাস্ত

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, হবিগঞ্জ থেকে | ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:২৮

বেতের আঘাতে ৩য় শ্রেণির ছাত্রী হাবিবা আক্তারের চোখ নষ্টকারী অভিযুক্ত শিক্ষক নিরঞ্জন সরকারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস তাকে সাম িয়ক বরখাস্তের নোটিশ করে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক। আহত হাবিবা বর্তমানে জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অপারেশন করে তার চোখটি কেটে ফেলে দেয়া হয়েছে। মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার যাদবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।
 উল্লেখ্য, গত রোববার ক্লাস চলাকালে সহকারী শিক্ষক নিরঞ্জন দাশ তার হাতের একটি বেত ছুড়ে মারলে তা সরাসরি হাবিবার চোখে লাগে। এতে তার চোখ থেকে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় হাবিবাকে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে ডাক্তাররা পরীক্ষার পর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে সিলেটে রেফার্ড করেন। পরে তার স্বজনরা হাবিবাকে ঢাকা চক্ষু হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান, বেতটি সরাসরি হাবিবার চোখের ভেতরে আঘাত করায় তার চোখ মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ব্যাপারে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানান, বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থায় শিক্ষার্থীদের বেত্রাঘাত করার ব্যাপারে কঠিন নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

শুধু তাই নয় শ্রেণিকক্ষে বেত নিয়ে যাওয়ারও অনুমতি নেই। যে শিক্ষক এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছেন তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর