× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও আইসিআরসির উদ্যোগে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, ৭:২৪

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অফ দ্য রেড ক্রস এর যৌথ উদ্যোগে এবং সিআরপি সাভার কেন্দ্রের আয়োজনে বিশ্ব প্রাথমিক চিকিৎসা দিবস উপলক্ষ্যে শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের এ বিষয়ে ধারনা প্রদানের লক্ষ্যে দিনব্যপী প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রশিক্ষক ও স্বেচ্ছাসেবকরা এই প্রশিক্ষণটি পরিচালনা করেন।প্রশিক্ষণে ৩৫ জন শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি অংশগ্রহণ করেন। শারীরিক প্রতিবন্ধীদের প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে হাতে কলমে জ্ঞান দেওয়ায় এই প্রশিক্ষণের মূল উদ্দেশ্যে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। সোমবার সকালে সিআরপি সাভার কেন্দ্রের প্রশিক্ষণ কক্ষে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উপ-মহাসচিব মো: রফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন জার্মান রেড ক্রসের ফাস্ট এইড ডেলিগেট, আইসিআরসি, বাংলাদেশ । এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উপপরিচালক ও ফাস্ট এইড ফোকাল পার্সন ডা: শাহানা জাফর এবং আইসিআরসি, আইএফআরসি ও সিআরপি’র কর্মকর্তাবৃন্দ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিআরপি’র নির্বাহী পরিচালক মো: শফিউল ইসলাম। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উপ-মহাসচিব মো: রফিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের দেশেও বেশ কিছু মানুষ রয়েছে যারা সামজিক বৈষম্যের শিকার এবং তারা তাদের মৌলিক অধিকার থেকেও বঞ্চিত হয়।
এসব সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠির কাছাকাছি পৌছিয়ে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সুবিধাভূক্ত জনগোষ্ঠি হিসেবে গড়ে তোলায় থাকবে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রচেষ্টা। তিনি বলেন, শিশু থেকে বয়োবৃদ্ধ, প্রতিবন্ধীসহ সকল স্তরের মানুষের প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে ধারণা থাকা দরকার। শহরের মানুষদের ক্ষেত্রে যেমন প্রযোজ্য, গ্রামাঞ্চলের মানুষদের জন্য এটি আরও বেশি প্রযোজ্য কারণ, গ্রামের মানুষেরা অজ্ঞতার কারণে এখনও কুসংস্কারে বিশ্বাসী।বিশেষ করে কোন ব্যক্তিকে সাপে কামড় দিলে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে নিকটবর্তী হাসপাতালে না নিয়ে বরঞ্চ গ্রাম্য কবিরাজের মাধ্যমে ভুল চিকিৎসা প্রদানের মাধ্যমে সেই রোগীকে আরও মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়। যদি সেই পরিবারের কারো প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে ধারণা থাকতো তাহলে মনে হয় এঘটনার সৃষ্টি হতোনা। আমরা এখনও অনেক পিছিয়ে আছি। সরকারি পর্যায়ে এই কার্যক্রম আরও বাড়াতে হবে। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি সারাবছরই প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। ২০১৮ সালে ১৬৮টি প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ক প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। যার মাধ্যমে ৫০৪০ জন ব্যক্তিকে প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। চলতি বছর, ২০১৯ সালের আগস্ট পর্যন্ত ১৪৯টি প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয় এবং ৪৪৭০ জন ব্যক্তিকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর