× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে ২০শে সেপ্টেম্বর রওনা হবেন প্রধানমন্ত্রী

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৯:১৪

 যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে অনুষ্ঠেয় জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে ২০শে সেপ্টেম্বর দেশ ছাড়ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অধিবেশন শেষে ১লা অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্র ছাড়বেন তিনি। গত ১৫ই অক্টোবর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাষ্ট্রাচার প্রধান এ.কে.এম শহীদুল করিম প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের সময়সূচি বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগে পাঠিয়েছেন। এতে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রী ২২ থেকে ২৯শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে অবস্থান করবেন। এজন্য ২০শে সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় ১৫টা ২৫ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইট নং বিজি ১২৭ যোগে আবুধাবি হয়ে নিউ ইয়র্ক, যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করবেন। এরপর ১লা অক্টোবর স্থানীয় সময় পাঁচটা ৩৫ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইট নং বিজি ১২৮ যোগে আবুধাবি, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফিরবেন।



দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ জবি ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে, দোকানিদের মারধর
জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) সামনের ফাঁকা জায়গার (টিএসসি নামে পরিচিত) দোকান থেকে ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তরিকুল-রাসেলের নেতা-কর্মীরা। দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
চাঁদার টাকা কম দেয়ায় খিচুড়ির পাতিল ছিনতাই ও দোকানিদের পিটিয়ে আহত করেন। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজিসহ যেকোনো ধরনের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডকে প্রশ্রয় দেবে না ছাত্রলীগ। কোনো অপরাধ দেখা মাত্র আমরা জড়িতদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেবো। প্রশাসনকেও বলবো যাতে কোনো ছাড় না দেয়া হয়। টিএসসি’র দোকানদারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতারা তাদের কর্মীদের মাধ্যমে দীর্ঘদিন চাঁদাবাজি করে আসছিল। দোকান বসানোর সময় প্রতি দোকান থেকে ১০ হাজার টাকা করে অগ্রিম নেয়া হয়েছিল। গত ১৯শে ফেব্রুয়ারি ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্তির পর এলাকাভিত্তিক বিভিন্ন শাখা প্রশাখায় বিভক্ত হয়ে পড়ে। এতে করে টিএসসিতে চাঁদাবাজির ব্যাপকতা বেড়ে যায়।
জানা যায়, গত ১৪ই সেপ্টেম্বর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কমিটি রদবদলের রাতে ক্যাম্পাসে আনন্দ মিছিল করেন এবং পরদিন মিষ্টি খাওয়ার নাম করে টিএসসিতে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা দোকানিদের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।
দোকানিরা চাঁদা কম দেয়ায় এ সময় তাদের মারধর করে। এক খিচুড়ি দোকানির পাতিল ছিনতাই করে নিয়ে আসে। এবং তার ক্যাশ থেকে প্রায় অর্ধ লাখ টাকা নিয়ে চলে যায়। এর প্রতিবাদে দোকানিরা ধর্মঘট ডেকেছে। এতে করে ভোগান্তিতে পড়েছে শিক্ষার্থীরা।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক দোকানি বলেন, রোববার সন্ধ্যায় মাছুম, মামুন, আলমগীর, লিখন, শিশির, কামরুলসহ ১২-১৫ জন টিএসসিতে এসে প্রতি দোকান থেকে ২০ হাজার করে ও শিঙাড়া সমুচার দোকান থেকে ৫০ হাজার টাকা তাৎক্ষণিক চাঁদা দাবি করে। এ সময় দোকানিরা এত টাকা দিতে পারবে না বলে জানালে দোকানদার ইমনকে মারধর শুরু করে। তাকে বাঁচাতে এলে আরো দুই দোকানিকে মারধর করে তারা। এরপর দোকানের ক্যাশ হাতিয়ে সব দোকান থেকে প্রায় ৫০ হাজার টাকা ও সিগারেটের প্যাকেট নিয়ে যায়। এক খিচুড়ির দোকানের ক্যাশে টাকা না থাকায় খিচুড়ির পাতিল ছিনতাই করে নিয়ে আসে। পাশের বিকাশের দোকান থেকে ক্যাশের পাশাপাশি ৬ হাজার টাকা বিকাশ করে নিয়ে যায়।
জবি ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক কমিটির সভাপতি তরিকুল ইসলামকে এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি প্রথমে চাঁদাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করেন। এরপর বলেন, টিএসসিতে চাঁদাবাজির বিষয়টি আমার জানা নেই। বিষয়টি এখন জেনেছি, খোঁজ নিয়ে দেখবো।
এ বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, র‌্যাব ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদের কাছে চাঁদাবাজদের একটি তালিকা চাওয়া হয়েছে। আমরা বিভিন্ন মাধ্যম থেকে চাঁদাবাজদের তালিকা তৈরি করছি। খুব শিগগিরই আমরা এদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থার পাশাপাশি প্রাতিষ্ঠানিক সিদ্ধান্তও নেবো। এ বিষয়ে সকলের সহযোগিতা দরকার। সূত্রাপুর থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী বলেন, টিএসসিতে চাঁদাবাজির বিষয়ে আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ দেয়নি। চাঁদাবাজির বিষয়ে আমরা জিরো টলারেন্সে রয়েছি। এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ দিলে আমরা ব্যবস্থা নেবো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর