× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার

ভিকারুননিসার নতুন অধ্যক্ষ ফওজিয়ার নিয়োগ স্থগিত চেয়ে চেম্বার আদালতে আবেদন

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৮:৩৩

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে নতুন অধ্যক্ষ ফওজিয়াকে নিয়োগ দিয়ে জারি করা প্রজ্ঞাপন স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে আবেদন করেছেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। গতকাল আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় তিনি এ আবেদন করেন। আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ বলেন, হাইকোর্ট বিভাগে তার নিয়োগ স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছিলাম। আদালত তার নিয়োগের বৈধতা নিয়ে রুল জারি করেছেন। তবে কোনো স্থগিতাদেশ দেননি। এ কারণে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে নতুন অধ্যক্ষের নিয়োগের স্থগিতাদেশ চেয়ে আবেদন করেছি। আশা করছি, বৃহস্পতিবার এ আবেদনের ওপর চেম্বার জজ আদালতে শুনানি হবে। তিনি আরো বলেন, যেহেতু মামলাটি এখনো চলমান, সেহেতু ফাওজিয়া নতুন অধ্যক্ষ হিসেবে ভিকারুননিসায় যোগ দিতে পারেন না।
পত্রিকার মাধ্যমে জানতে পরলাম তিনি কর্মে যোগদান করেছেন। এর আগে ১৭ই সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের নতুন অধ্যক্ষ ফওজিয়া রেজওয়ানের নিয়োগ কেন অবৈধ ঘোষণা করবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আদেশের পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে ফওজিয়া রেজওয়ানের নিয়োগ স্থগিত চেয়ে দায়ের করা রিট আবেদনের ওপর রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। তবে তার কাজে যোগদানের বিষয়ে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেননি আদালত। তাই অধ্যক্ষ পদে তার দায়িত্ব নিতে কোনও বাধা নেই। এর আগে গত ১৫ই সেপ্টেম্বর ঢাকার সবুজবাগ সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনরত মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফওজিয়া রেজওয়ানকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ দেয় সরকার। পরে ফওজিয়া রেজওয়ানের নিয়োগ স্থগিত চেয়ে মঙ্গলবার সকালে রিট আবেদনটি দায়ের করেন ভিকারুননিসার গভর্নিং বডির সাবেক সদস্য ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. ইউনুছ আলী আকন্দ। রিট আবেদনে তিনি বলেন, ১৯৭৯ সালের রেগুলেশন ২(এ)(ই), ৩(১) (২) অনুযায়ী অধ্যক্ষ নিয়োগের ক্ষমতা গভর্নিং বডির এবং ২০০৯ সালের রেগুলেশন ৪১ (২)(খ)(৪) অনুযায়ী শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগের ক্ষমতা গভর্নিং বডির। কিন্তু সরকার অবৈধ ক্ষমতা ব্যবহার করে মাউশির একজন কর্মকর্তাকে অধ্যক্ষ পদে নিয়োগ দেয়। ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে ফওজিয়া রেজওয়ানের নিয়োগ স্থগিত চেয়ে করা রিট আবেদনের শুনানিতে তিনি আদালতকে বলেন, সরকার ভিকারুন নিসায় মাউশি কর্মকর্তাকে নিয়োগ দিতে পারে না। এটা (নিয়োগ) তো দেবে গভর্নিং কমিটি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর