× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

তবুও জুনাইনা ও আরিফুলকে ঘিরে প্রত্যাশা ফেডারেশনের

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৮:৩৩

শিলং গৌহাটির এসএ গেমসের সাঁতারে দুটি স্বর্ণ জিতে লাল সবুজ পতাকার মান রেখেছিলেন মাহফুজা খাতুন শিলা। পারিবারিক কারণে আসন্ন এসএ গেমসে পাওয়া যাচ্ছে না তাকে। তবে শিলার অনুপস্থিতি মোটেও ভাবাচ্ছে না ফেডারেশনকে। ঘরোয়া আসরে রেকর্ডের বন্যা বইয়ে দেয়া জুনাইনা আহমেদ ও আরিফুল ইসলামকে ঘিরেই প্রত্যাশা তাদের। যদিও এখনও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ব্যর্থ এই দুই সাঁতারু। সর্বশেষ বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে ব্যর্থ হয়েছেন তারা। দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত ওই আসরে নিজেদের সেরাটাও দিতে পারেননি জুনাইনা ও আরিফুল।  
২০১৬ সালে গৌহাটির ড. জাকির অ্যাকুয়াটিক সেন্টার পুলে ঝড় তুলেছিলেন শিলা।
১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে এক মিনিট ১৭.৮৬ সেকেন্ডে এবং ৫০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে ৩৪.৮৮ সেকেন্ড সময় নিয়ে দু’টি স্বর্ণপদক জেতেন নৌবাহিনীর এই সাঁতারু। এসএ গেমসে লাল সবুজের একজন সাঁতারুর এটাই ছিল সর্বোচ্চ অর্জন। গেমসের স্বর্ণজয়ী ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্ত ও শুটার শাকিল আহমেদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংবর্ধনাও পেয়েছিলেন শিলা। গেমস থেকে আসার পরই মার্চে আরেক সাঁতারু শাহজাহান আলী রনির সঙ্গে বিবাহের বন্ধনে আবদ্ধ হন শিলা। প্রায় সাড়ে তিন বছর সংসার করার পর এবার মা হওয়ার আশা তার। নেপাল এসএ গেমসের ক্যাম্পেও ডাক পেয়েছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি তিনি ক্যাম্প কমান্ডার লে. কমান্ডার মাহাদিউল হাসানের কাছে একটি চিঠি দিয়েছেন। মাহাদি বলেন, ‘শিলা আমার কাছে একটি চিঠি দিয়েছেন। চিঠি অনুযায়ী তিনি মা হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। সে অনুযায়ী চিকিৎসকের পরামর্শও নিয়েছেন। চিকিৎসক শিলাকে পূর্ণ বিশ্রামের কথা বলেছেন। তাই আমরা প্রাথমিক ক্যাম্পের ৩২ জন থেকে শিলাসহ আরও ১০ জনকে বাদ দিয়ে ২২ জনে নামিয়ে এনেছি।’ তিনি যোগ করেন, ‘এবার আমরা আরিফুল ইসলাম ও জুনাইনা আহমেদের মাধ্যমে স্বর্ণপদকের প্রত্যাশা করছি।’
যাদের ঘিরে ফেডারেশনের এত প্রত্যাশা গত জুলাই মাসে অনুষ্ঠিত ফিনা বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে ব্যর্থ হয়েছেন তারা। দক্ষিণ কোরিয়ার গুয়ানজুতে নারীদের ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ১০০ জনের মধ্যে ৮৬তম হয়েছেন জুনাইনা। তার টাইমিং ছিল ৩০.৯৬ সেকেন্ড। এর আগে ২০০ মিটার বাটারফ্লাইয়ে ৩৩ জনের মধ্যে তার অবস্থান ছিল ৩২তম। সাঁতারের ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলের হিটে ২৪.৯২ সেকেন্ড সময় নিয়ে সাঁতার শেষ করেন আরিফুল। এই টাইমিংয়ে ১৩২ জন প্রতিযোগীর মধ্যে ৯৯তম হয়েছিলেন এই সাঁতারু। এ ইভেন্টে হিট পেরিয়ে সেমিফাইনালে ওঠা ১৬ প্রতিযোগীর মধ্যে সর্বশেষ জনের টাইমিং ২২.২১ সেকেন্ড। এর আগে প্রথম ইভেন্ট ১০০ মিটার ব্রেষ্টস্ট্রোকে এক মিনিট ৭.৭৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে ৮৭ প্রতিযোগীর মধ্যে ৭৮তম হন গত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে তিনটি রেকর্ডসহ পাঁচটি সোনা জেতা সাঁতারু আরিফুল ইসলাম। তারপরেও তাদের প্রতি আস্থা রেখে ফেডারেশন সাধারণ সম্পাদক এমবি সাইফ বলেন, ‘আরিফ ও জুনাইনার মাধ্যমেই আমরা গেমসে শিলার অভাব ঘুচিয়ে নিতে চাচ্ছি। আমাদের জাপানি কোচ তাকিও ইনোকি রয়েছেন। সেই সঙ্গে জাপান থেকে আরও একজন কোচ আসবেন। ইনোকি নিয়ে আসছেন। দ্বিতীয় কোচকে আমরা কেবল বিমান ভাড়া এবং থাকা-খাওয়া দেবো। আশা করছি এ দুই বিদেশি কোচের অধীনে জুনাইনা ও আরিফুল তাদের পারফরমেন্সে উন্নতি ঘটাতে পারবেন।’ গেমসের আগে চীনের কুংমিংয়ে সাঁতারুদের একমাস অনুশীলন করানোর কথাও বলেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর