× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
কর্মক্ষেত্রে স্বাস্থ্য বিষয়ক ২য় জাতীয় সম্মেলনে বক্তারা

টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য অর্জনে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার নিশ্চিত করতে হবে

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৮:৪০

যৌন ও প্রজনন আমাদের সমাজে উপেক্ষিত কিন্তু আমাদের মনোভাব বদলানোর সময় এসেছে। বিশেষ করে পোশাক শিল্পে নারীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিশেষ উদ্যোগ নেয়া জরুরি। টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য অর্জনে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। ১৭ই সেপ্টেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত ‘কর্মক্ষেত্রে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার সম্পর্কিত বিষয়ক দ্বিতীয় জাতীয় সম্মেলন’-এ বক্তারা এসব কথা বলেন। তারা আরো বলেন, কর্মক্ষেত্রে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানো দরকার। এ বিষয়ে আরো কার্যকারী ভূমিকা পালনে বিভিন্ন সেক্টরের মধ্যে সহযোগিতার মনোভাব বৃদ্ধি করতে হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগ ও এসএনভি নেদারল্যান্ডস ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন-এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এই সম্মেলনে উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকী। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, যৌন ও প্রজনন আমাদের সমাজে উপেক্ষিত কিন্তু আমাদের মনোভাব বদলানোর সময় এসেছে।
পোশাক শিল্পে নারীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিশেষ উদ্যোগ নেয়া জরুরি। টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্য অর্জনে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। বর্তমান সরকার সেই লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নেদারল্যান্ডস রাষ্ট্রদূত হ্যারি ভারওয়েইজ বলেন, কর্মক্ষেত্রে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সুরক্ষার উদ্যোগগুলো শুধুমাত্র ভালো কাজ ভাবলে চলবে না, কারণ এ ধরনের কাজ আমাদের কর্মীদের উৎপাদনশীলতা বাড়িয়ে তুলে এবং এসএনভি নেদারল্যান্ডস ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন আমাদের দেখিয়েছে, এ ধরনের উদ্যোগ ব্যবসাকে লাভজন করে। কর্মক্ষেত্রে বিশেষ করে পোশাক শিল্পে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য অধিকার সুরক্ষা, গর্ভকালীন পরিচর্যা, নারীর প্রতি সহিংসতারোধ এবং পরিবার পরিকল্পনার মতো বিষয়গুলো নিয়ে এই সম্মেলনে ১৮টি গবেষণা সারাংশ উপস্থাপন ও এর উপর আলোচনা করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মঈনুল ইসলামের সভাপতিত্বে সম্মেলনে ঢাবি’র ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর তোমো পুতিয়াইনিন, এসএনভি নেদারল্যান্ডস ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর জেসন ব্যালেঞ্জার। সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ড. হালিদা হানুম আক্তার।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর