× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার

ধর্ষণের অভিযোগে নেপালের সাবেক স্পিকার গ্রেপ্তার

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৭ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার, ১:২০

এক নারী সহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে নেপাল পার্লামেন্টের সাবেক স্পিকার কৃষ্ণ বাহাদুর মোহরা’কে। গত মঙ্গলবার স্পিকার হিসেবে পদত্যাগ করেন তিনি। এরপর রাজধানী কাঠমান্ডুর এক আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে। এ ঘটনায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। তবে ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সাবেক মাওবাদী এই নেতা। তার বিরুদ্ধে এক নারী সহকর্মী অভিযোগ করেছেন গত সপ্তাহের রোববার তার এপার্টমেন্টে মদ্যপ অবস্থায় তার ওপর হামলে পড়েন স্পিকার কৃষ্ণ বাহাদুর মোহরা। তিনি উন্মত্ত অবস্থায় তার এপার্টমেন্টে হাজির হন বলে অভিযোগ করেন ওই নারী। তিনি স্থানীয় মিডিয়াকে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেছেন, এমনটা ঘটবে আমি চিন্তাও করি নি।
তিনি আমার ওপর শক্তি প্রয়োগ করেছেন। আমি পুলিশে ফোন দেবো বলে হুমকি দেয়ার পরে তিনি আমাকে ছেড়ে দেন।

২০০৬ সালে নেপালে দশকব্যাপী গৃহযুদ্ধের অবসান হয়। ওই সময় যে শান্তি আলোচনা হয় তখন মাওবাদী বিদ্রোহীদের প্রধান মধ্যস্থতাকারী ছিলেন এই কৃষ্ণ বাহাদুর। ২০১৭ সালের জাতীয় নির্বাচনে এই মাওবাদীদের জোট ও উদারমনা কমিউনিস্টদের সঙ্গে গড়ে তোলা জোট ভূমিধস বিজয় পায়। এরপর গঠিত পার্লামেন্টের স্পিকার নির্বাচিত হন কৃষ্ণ বাহাদুর। তবে অভিযোগ উঠার পর গত মঙ্গলবার তিনি পদত্যাগ করেছেন। তিনি মনে করেন যে অভিযোগ উঠেছে তা গুরুত্বর। এর সুষ্ঠু তদন্ত চান তিনি। কারণ, এতে তার চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। ওদিকে ক্ষমতাসীন নেপাল কমিউনিস্ট পার্টিও তার পদত্যাগ দাবি করেছিল। কারণ, ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ জোরালো হয়ে উঠেছিল। যৌন নির্যাতনের অভিযোগে নেপালে এত বড় মাপের একজন রাজনীতিককে গ্রেপ্তারের ঘটনা বিরল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর