× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার

১৩ বছর পর কাতারের মুখোমুখি বাংলাদেশ

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১০ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৯:০৩

বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক ফুটবলে কাতারের বিপক্ষে ম্যাচ খেলছে এক যুগেরও বেশি সময় পর। ২০০৬ সালের ৬ই সেপ্টেম্বর দোহায় এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের ফিরতি ম্যাচটির পর দুই দেশের জাতীয় দল আর মুখোমুখি হয়নি। ওই ম্যাচে কাতার জিতেছিল ৩-০ গোলে। এর আগে ওই বছরের ১৬ই আগস্ট চট্টগ্রামে হোম ম্যাচ বাংলাদেশ হেরেছিল ৪-১ গোলে। সবশেষ লড়াইটি অনূর্ধ্ব-২৩ দলের। ইন্দোনেশিয়ায় অনুষ্ঠিত এশিয়ান গেমস ফুটবলে কাতারকে ১-০ গোলে হারিয়ে চমক দেখিয়েছিল বাংলাদেশ। ওই জয়ে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো উঠেছিল এশিয়ান গেমস ফুটবলের দ্বিতীয় পর্বে। এটিই ছিল জেমি ডে’র অধীনে প্রথম টুর্নামেন্ট।
এশিয়ার শীর্ষ পর্যায়ের দলগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশিবার মুখোমুখি হয়েছে ইরানের। ১৯৭৮ বিশ্বকাপ খেলা ইরানের সঙ্গে বাংলাদেশের প্রথম মোকাবিলা ছিল ১৯৮০ সালের এশিয়ান কাপে। নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে এই একবারই এশিয়ান কাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশ। জাপানের সঙ্গেও আন্তর্জাতিক ফুটবলে বাংলাদেশের দেখা হয়েছে পাঁচবার। ১৯৭৫ সালে প্রথমবারের মতো জাপানের মুখোমুখি হয়ে (মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে) ৩-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। এরপর ১৯৮৬ সালের সিউল এশিয়ান গেমস ও ১৯৯০ সালের বেইজিং এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশ জাপানের কাছে হেরেছিল যথাক্রমে ৪-০ ও ৩-০ গোলে। ১৯৯৩ সালে জাপানের মাটিতে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছিল ৮-০ গোলে। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে এটাই বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হার। দুবাইয়ে পরবর্তী লেগে হারে ৪-১ গোলে। এশিয়ার ‘বিশ্বকাপ জায়ান্ট’ দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গেই সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারের রেকর্ড বাংলাদেশের। ১৯৭৯ সালে কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কাপে বাংলাদেশ হেরেছিল ৯-০ গোলে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর