× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার

নিজেদের ফেভারিট ভাবছে না কাতার

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১০ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৯:০৫

র‌্যাঙ্কিং, শক্তিমত্তা আর পরিসংখ্যান সবদিক থেকেই বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে কাতার ফুটবল দল। র‌্যাঙ্কিংয়ে কাতার যেখানে ৬২ নম্বরে, বাংলাদেশ সেখানে ১৮৭ তে। এখন পর্যন্ত চারবারের মুখোমুখি লড়াইয়ে তিনবার জয়ী তারা, অন্যটি ড্র। আর তারা বাংলাদেশে এসেছে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নের মুকুট পরে। এরপরেও কাতারের স্প্যানিয়ার্ড কোচ ফেলিক্স সানচেস নিজেদের ‘ফেভারিট’ বলতে নারাজ।
বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ সন্ধ্যা ৭টায় ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ ও ২০২৩ সালের এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-কাতার। বাছাই পর্বে বাংলাদেশের শুরুটা হয়েছে আফগানিস্তানের কাছে ১-০ গোলের হার দিয়ে। আর সেই আফগানদেরই ৬-০ গোলে বিধ্বস্ত করে কাতার। তবে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজকরা।
এ কারণেই সানচেজ বলেন, ‘কোনো ফেভারিট নেই। যদি আপনি ফেভারিট হতে চান, তাহলে সেটা আপনাকে মাঠে দেখাতে হবে। আমরা আমাদের খেলার মান ও পারফরম্যান্সের উন্নতির চেষ্টা করবো। নিজেদের শক্তি অনুযায়ী নিজেদের খেলাটা খেলার এবং ভালো ফল পাওয়ার চেষ্টা করবো।’
র‌্যাঙ্কিংয়ে ১২৫ ধাপ ব্যবধানকে আমলেই নিচ্ছেন না কাতার কোচ। সানচেজ বলেন, ‘ আমরা জানি বাংলাদেশের অবস্থান এবং আরো অনেক কারণে এটা আমাদের জন্য কঠিন ম্যাচ হবে। ফিফার র‌্যাঙ্কিং কাগুজে ব্যাপার। স্রেফ একটা সংখ্যা বা নাম। আমাদের মাঠে খেলতে হবে। আমরা যদি র‌্যাঙ্কিং অনুসরণ করি, তাহলে স্বাভাবিকভাবে এক বা দুইয়ে আছি কিন্তু এতে করে কিছু বদলাবে না।’ বাংলদেশ দল নিয়ে কিছুটা হোমওয়ার্ক করেই মাঠে নামছে কাতার। সানচেজ বলেন, ‘অবশ্যই প্রত্যেকে প্রতিপক্ষ নিয়ে ভাবে। আমরা বাংলাদেশের শেষ ম্যাচ দেখেছি এবং জানি তাদের শক্তির জায়গাটা। সেট-পিস, লম্বা থ্রো-এগুলো তাদের সুযোগ তৈরি করে দিতে পারে। আমি বাংলাদেশকে খুব বেশি বিশ্লেষণ করিনি, তাদের দলে নিয়মিত খেলোয়াড় আছে কি না বা নতুন কেউ খেলছে কিনা জানি না। তবে (ফুটবলে) ছোটখাট বিষয়ও পার্থক্য গড়ে দিতে পারে। আমরা নিজেদের নিয়ে ভাবছি। নিজেদের খেলা নিয়ে প্রস্তুত হওয়ার বিষয়গুলো ভাবছি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর