× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার
পেছাতে পারে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’

টাকা দেবে স্পন্সর, খরচ করবে বিসিবি

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ১১ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ৯:০৯

‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’ আয়োজনের পালে হাওয়া লেগেছে। গতকাল চারটি দলের স্পন্সরের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক আলোচনায় বসে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালকরা। বিপিএল ছাড়াও কয়েকটি বিষয়ে আলোচনা হয় সভায়। আলোচনায় প্রাধান্য পায় পূর্বাচলে শেখ হাসিনা স্টেডিয়ামের নির্মাণ প্রসঙ্গও। সভা শেষে বিসিবি পরিচালক মাহবুবুল আনাম বলেন, ‘আজ বেশ কিছু সাব-কমিটির সভা ছিল। আজ বিপিএলের চারটি স্পন্সর পার্টনারের সঙ্গে আলাপ আলোচনা হয়েছে। তাদেরও কিছু জিজ্ঞাসা ছিল। আমাদেরও তাদের সম্পর্কে জানার ছিল, তারা কোন জায়গা থেকে এসেছে, তাদের ব্যাকগ্রাউন্ড কী।
তাদের কি দায়িত্ব থাকবে, তাদের পরিধি কতটা থাকবে, সেগুলো আমরা বুঝিয়ে দিয়েছি। পরবর্তী পর্যায়ে কমিটি বোর্ডকে জানাবে, কাকে কাকে দায়িত্ব দেয়া হবে। শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম নির্মাণে একজন আর্কিটেক্ট নিয়োগের ব্যাপারে আমরা দরপত্র আহ্বান করেছি। যে টেন্ডারগুলো পড়েছে সেগুলোকে আজ আমরা লিপিবদ্ধ করেছি। এরপর বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম অনুযায়ী সেগুলো নিয়ে কাজ করা হবে।’
বিপিএল নিয়ে মাহবুবুল আনাম বলেন, ‘আপনারা জানেন যে, আমাদের যে ইওআইটি ছিল এটা ছিল টিম স্পন্সরশিপের জন্য। তারা দলের মালিক হবে না। ওরা শুধু টিম স্পন্সরশিপ দায়িত্বটা পাবে। স্পন্সরশিপ রাইটের সঙ্গে সঙ্গে তারা কি সুবিধা পাবে সেগুলো আমরা তাদের বুঝিয়ে দিয়েছি।’  বিসিবির এই পরিচালক বলেন, ‘কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি নেই। স্পন্সর দায়িত্ব নিচ্ছে না। তারা টাকা   দেবে। তা বিসিবি খরচ করবে। বিগ ব্যাশ যেভাবে হয় সেভাবে হবে। বিগ ব্যাশে স্টেট টিম। বোর্ড নিজস্বভাবে খরচ করে। স্পন্সরশিপ একেকটি দলের জন্য একেকটি হয়।’
তবে স্পন্সররা সুবিধা পাবে বলেও জানান মাহবুবুল আনাম। তিনি বলেন, ‘আমাদের জাতীয় দলে যে রকম টিম স্পন্সরশিপ আছে তেমন। তারা যে স্পন্সরশিপ বেনিফিটগুলো পায় একই বেনিফিট তারাও পাবে। দল গঠনে তাদের সরাসরি কোনো ভূমিকা থাকবে না। পরোক্ষভাবে তারা হয়তো সাজেস্ট করতে পারে যে তাদের দলে কে কে আসলে তারা ভালো মনে করে। বিপিএলের এবারের ড্রাফটের আগেই আমরা অলরেডি আন্তর্জাতিক প্লেয়ারদের অন্তর্ভুক্ত করছি। ইতিমধ্যে ৪শ’র কাছাকাছি  প্লেয়ার নিবন্ধন করেছে। তবে যদি কোনো এডিশনাল বিদেশি প্লেয়ার আউট সাইড ড্রাফট নিতে হয় তাহলে টিম স্পন্সররা তাদের খরচে দলে অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে।’
আগামী ৬ই ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু বিপিএল আয়োজনের কথা থাকলেও তা এক সপ্তাহ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত পেছাতে পারে বলে জানিয়েছিলেন গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল। তিনি বলেন, ‘কোনো ক্রাইসিস সিচুয়েশন যদি হয় তখন আমরা কিন্তু পেছাই। এখন পর্যন্ত সে অবস্থানে নাই। আমাদের সময় আছে। তবে পেছালেও জানুয়ারির শেষ দিকে পাকিস্তান সফরে জাতীয় দলের ওপর তা প্রভাব ফেলবে না।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর