× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার

ভারতকে উপেক্ষা করে আইসিসি’র নতুন টুর্নামেন্ট

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ৯:০৩

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিসিআই) এবার উপেক্ষা করলো নিয়ন্ত্রক সংস্থা- আইসিসি। বিসিসিআই’র আপত্তি সত্ত্বেও ২০২৩ থেকে ২০৩১ পর্যন্ত নতুন এফটিপি চূড়ান্ত করেছে ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটি। আট বছরের পরবর্তী চক্রে আইসিসির সূচিতে বৈশ্বিক আরো দুই টুর্নামেন্ট যোগ করা হয়েছে। তবে এতে আপত্তি ভারতের। আইসিসির বর্তমান চক্রে ২০১৮ ও ২০২২ সালে কোরো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট নেই। কিন্তু তাদের ইচ্ছা প্রতিবছর যেনো আইসিসি কর্তৃক একটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজন করা যায়। আইসিসি ভাবছে এর ফলে খেলার ধারাবাহিকতা বাড়বে। এছাড়া ক্রিকেটও অনেক বেশি উপকৃত হবে।
আইসিসি চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহর বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন বিকল্প খতিয়ে দেখেছি। আমরা মনে করি, এভাবে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট বাড়ালে ক্রীড়াসূচিতে ধারাবাহিকতা আসবে। আর ক্রিকেটও অনেক বেশি উপকৃত হবে।’ তবে এমন কোনো টুর্নামেন্ট ক্রীড়া সূচিতে যোগ করার বিরুদ্ধে ছিল ভারত। তারা চেয়েছিল নবনির্বাচিত কমিটির মাধ্যমে এসব বিষয়ে আলোচনা করা হোক। বিসিসিআই-এর নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি বলেন, আমার লক্ষ্য আইসিসি থেকে ভারতের প্রাপ্য রাজস্ব ঠিকমতো বুঝে নেয়া। এখন নতুন বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট যুক্ত হলে দ্বিপাক্ষিক সিরিজগুলোতে তার প্রভাব পড়বে। সেক্ষেত্রে স্বাভাবিক আয়ে ব্যাঘাত ঘটতে পারে।
এফটিপিতে যুক্ত নতুন টুর্নামেন্টের ফরমেট ৫০ ওভারের হতে পারে। অনেকটা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আদলে ৬টি দল অংশ নেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এই টুর্নামেন্টে। আইসিসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুসারে ২০২৩ থেকে আট বছরের চক্রে মোট আটটি পুরুষ এবং আটটি নারী ইভেন্টের আয়োজন করা হবে। একই সঙ্গে চারটি করে অনূর্ধ্ব-১৯ পুরুষ ও নারী ইভেন্ট আয়োজন করা হবে।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর