× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

সোনাগাজীতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩৭ মামলার আসামি নিহত

অনলাইন

সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি | ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ৯:৫০

ফেনীর সোনাগাজীতে ইকবাল হোসেন নামে এক ব্যক্তি গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, ইকবাল আন্ত:জেলা ডাকাতদলের সরদার ছিলেন। পুলিশ আরও জানায়, এ সময় তাদের তিন সদস্য আহত হয়েছেন।

বুধবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের ছাড়াইতকান্দি গ্রামের পাঠান বাড়ি সংলগ্ন আজম খান মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি একনলা বন্দুক ও তিন রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, তার বিরুদ্ধে ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া থানা ছাড়া জেলার পাঁচটি থানা ও মীরসরাই থানায় মোট ৩৭টি মামলা রয়েছে। ইকবাল হোসেন সোনাগাজীর পূর্ব ছাড়াইতকান্দি গ্রামের মৃত আবদুর রব ও গুণধনীর ছেলে।

ফেনী ডিবি পুলিশের ওসি রঞ্জিত বডুয়া ও সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মঈন উদ্দিন জানান, গোপন খবরের ভিত্তিতে ডিবি ও সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশের একটি দল ওই গ্রামে যৌথ অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। এ সময় পুলিশ পাল্টা গুলি করলে ইকবাল গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এবং তার সহযোগিরা পালিয়ে যান।

পরে ইকবালকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ইকবাল ফেনী জেলা যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন জসিমের সৎ ভাই। গত ৬ মাস আগে ৪১ মাস সাজা খেটে জেলখানা থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর