× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার

দ্বিতীয় দিনের মতো আন্দোলনে বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারিরা

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার, ১:২০
ফাইল ফটো

আজও আন্দোলনে নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারিরা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ ও এমপিওভুক্তির দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার থেকে তারা লাগাতার আন্দোলন শুরু করেছে। আজ আন্দোলনের দ্বিতীয় দিন।

রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারি ফেডারেশনের নেতৃত্বে এই কর্মসূচি চলছে। আন্দোলনকারীরা নিজেদের দাবির পক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন ও বক্তৃতা করছেন। এর আগে মঙ্গলবার রাতেও অনেক শিক্ষক আন্দোলনের অংশ হিসেবে সেখানে রাত কাটিয়েছেন।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এমপিওভুক্তির জন্য বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকেও সম্মতি দেয়া হয়েছে। এ বছর মাধ্যমিক স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মিলিয়ে ২ হাজার সাতশ’রও কিছু বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হতে পারে।
যেকোনো সময় এমপিওভুক্তির এই তালিকা প্রকাশ করা হতে পারে।

এমপিওভুক্ত হলে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারিরা সরকার থেকে মাসে মূল বেতন ও কিছু ভাতা পান। বর্তমানে সারা দেশে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রায় ২৮ হাজার। এগুলোতে শিক্ষক-কর্মচারি আছেন প্রায় ৫ লাখ।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ ২০১০ সালে ১ হাজার ৬২৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়েছিল। এরপর থেকে এমপিওভুক্তির দাবিতে শিক্ষক-কর্মচারিদের আন্দোলন চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর