× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার

পদযাত্রায় বাধা, আমরণ অনশনে নন-এমপিও শিক্ষকরা

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, ৯:০১

এমপিও নীতিমালা সংশোধনের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের উদ্দেশ্যে পদযাত্রায় বাধার মুখে পড়েন নন এমপিও শিক্ষকরা। জাতীয় ঈদগাহ’র সামনে পুলিশি বাধার মুখে ব্যর্থ হয় তাদের পদযাত্রা। পদযাত্রায় সফল না হয়ে ঢাকা কেন্দ্রীয় ঈদগাহের সামনে বসে পড়েন তারা। এরপর ফের আন্দোলনের পূর্বের স্থান প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান নেন। নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারি ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যাপক গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, আমরা সকাল সাড়ে ১১টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উদ্দেশ্যে পদযাত্রা শুরু করি। জাতীয় ঈদগাহের সামনে গেলে পুলিশ আমাদের পদযাত্রায় বাধা দেয়। ফলে, আমাদের শিক্ষকরা ঈদগাহের সামনে বসে প্রতিবাদ চালিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে আমরা প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তায় এসে বসি।
তিনি আরও বলেন, পদযাত্রায় বাধা দেয়ায় শিক্ষকরা মনক্ষুন্ন হয়েছেন। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চাই। গতকাল বিকাল ৫টায় অধ্যাপক গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার জানান, তাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তারা ঘরে ফিরবেন না। আজ জুম্মার নামাজ শেষে মুনাজাতের পর থেকে তারা আমরণ অনশনে বসবেন। ওদিকে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা গ্রেড পরিবর্তনের দাবিতে ৩ দিন ধরে কর্মবিরতি পালন করে আসছেন। মঙ্গলবার তারা ১ ঘণ্টার কর্মবিরতি, বুধবার ৩ ঘণ্টা ও গতকাল পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি পালন করেন। তাদের দাবি আদায় না হলে ২৩শে অক্টোবর ঢাকায় মহাসমাবেশের ঘোষণা দিয়েছেন। শিক্ষকরা ‘বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদ’র ব্যানারে আন্দোলন করে আসছেন। সংগঠনের সচিব মোহাম্মদ শামছুদ্দীন মাসুদ বলেন, ১০ম গ্রেড প্রধান শিক্ষকদের আর সহকারি শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড দেবার দাবি করে আসছি দীর্ঘ দিন থেকে। কিন্তু প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রাধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড দেয়া হলেও সহকারীদের দেয়া হয়েছে ১২তম গ্রেড। বৈষম্য দূরীকরণের উদ্যোগ সরকার থেকে নেয়া হলেও বাস্তবায়ন না হওয়াও আমরা হতাশ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর