× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার

ব্রিজ নাকি মরণ ফাঁদ

বাংলারজমিন

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি | ২১ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার, ৭:৫৭

সড়কে নতুন ব্রিজ। আশা জেগেছিল মানুষের। ভরসা বাড়তে শুরু করেছিল এলাকাবাসীর। কিন্তু সেই ব্রিজগুলো মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। সঙ্গে আশা আর ভরসাও ভেঙে গেছে জনগণের। এরজন্য কর্তৃপক্ষের গাফলতিকে দায়ী করেছেন এলাকাবাসী। জানা গেছে, চিলমারী সদর থেকে জোড়গাছ যাওয়ার পথে প্রধান সড়কে সদ্য বেশ কয়েকটি ব্রিজ তৈরি করেন স্থানীয় প্রকৌশল বিভাগ এলজিইডি। সেই ব্রিজগুলোতে মানা হয়নি কোনো নিয়ম নীতি।
অনিময় আর দুর্নীতির মধ্য দিয়ে কাজ শেষ করলেও সংযোগে করা হয়েছে গাফলতি। কর্তৃপক্ষের নজরদারির অভাব আর গাফলতির ফলে নব-নির্মিত ব্রিজগুলোসহ পুরাতন ব্রিজগুলো এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। ঘটছে প্রায় সময় দুর্ঘটনা। সরকার পাড়া এলাকার এনামুল, নুর আমিন, শাহজাহানসহ এলাকাবাসী জানান, এখানে ব্রিজ তৈরিতে অনিয়ম করায় তা এলাকাবাসী বাধা দিলে পরে প্রভাব দেখিয়ে তারা কাজ সমাপ্ত করে। শুধু তাই নয়, সড়ক সংযোগ সঠিকভাবে না দেয়ায় ব্রিজগুলো এখন মৃত্যু কূপে পরিণত হয়েছে। নছরউদ্দিন মোড় এলাকার আপেল, নুর হোসেনসহ অনেকে জানান ব্রিজের সংযোগে মাটি ভরাট না করায় এখানে সকল যানবাহনের চলাচলে সমস্যার সৃষ্টিসহ বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙকা রয়েছে। দিনমজুর আমিনুল জানান, দুর্ঘটনা এড়াতে এখানে (ব্রিজের পাশে) নিজেদের উদ্যোগে এলাকাবাসী বিদ্যুতের বাতির ব্যবস্থা করেছেন। দায়িত্বরতদের বারবার বলেও কোনো ফল পাওয়া যাচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন এলাকাবাসী। অটোচালক ফরিদুল, আমজাদসহ অনেকে জানান, উপজেলা সদর থেকে জোড়গাছ যাওয়ার পথে প্রায় ৩ কি.মি. রাস্তার মধ্যে নতুন তিনটি ও পুরাতন ২-৩টি ব্রিজ পড়ে। ব্রিজগুলো সড়ক থেকে বেশ উঁচু হওয়ায় বেশিরভাগ সময় সমস্যার সৃষ্টি হয়। এ ছাড়াও নতুন ব্রিজগুলোর সংযোগ ঠিকমতো না করায় গাড়ি নিয়ে চলা খুবই কঠিন। তারা আরো জানান, পুরো সড়কটি খানাখন্দকে ভরা হওয়ায় ঝুঁকি নিয়েই চলতে হচ্ছে। স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা জানায় অটো, রিকশা বা স্কুলের গাড়িতে আসলে ব্রিজগুলোর সামনে খুবই ভয় করে।
আর মনে হয় কখন যেন উল্টে যায়। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মো. আজিজার রহমানের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান ব্রিজগুলো নিয়ম মেনেই করা হয়েছে আর সংযোগে কোনো সমস্যা থাকলে তা সমাধান করা হবে।


 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর