× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার

পুঁজিবাজার থেকে ২৩৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে ওমেরা পেট্রোলিয়াম

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ৮:০৩

ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে শেয়ারবাজার থেকে ২৩৮ কোটি ৪৩ লাখ টাকা সংগ্রহ করবে ওমেরা পেট্রোলিয়াম লিমিটেড। এরমধ্যে ১৮৬ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে কোম্পানিটি ৩ হাজার ৮০০ টন এলপিজি ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন অত্যাধুনিক মানের সমুদ্রগামী জাহাজ কিনবে। এছাড়া ঋণ পরিশোধে ব্যয় হবে ৪৬ কোটি ৭৫ রাখ টাকা। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্তির লক্ষ্যে রোববার রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত রোড শো’ অনুষ্ঠানে কোম্পানির উদ্যোক্তারা এ তথ্য জানান।

রোড শো’তে ওমেরা পেট্রোলিয়ামের প্রধন নির্বাহী কর্মকর্তা শামসুল হক আহমেদ জানান, ‘বর্তমানে ওমেরা পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের ৬২.৪৯ শতাংশ শেয়ারের মালিক মবিল যমুনা বাংলাদেশ লিমিটেড। এছাড়া কোম্পানিরি অন্যান্য অংশীদারের মধ্যে আছে বি বি এনার্জি এশিয়া পিটিই লিমিটেড এবং সিংগাপুর ও নেদারল্যান্ডের আর্থিক প্রতিষ্ঠান এফ এম ও।’

তিনি জানান, ‘দেশের এলপি গ্যাসের ক্রমবর্ধমান চাহিদা বিবেচনায় রেখে ২০১৫ সালে সম্পূর্ণ ইউরোপিয়ান প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি স্থাপনের মধ্য দিয়ে ওমেরা পেট্রোলিয়াম এলপিজি খাতে যাত্রা শুরু করে। এলপিজি আমদানি করে ওমেরা ৫টি ভিন্ন আকারে যথা ৫.৫, ১২, ২৫,৩৫ ও ৪৫ কেজি সিলিন্ডারে বোতলজাত করে গৃহস্থালী এবং বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য বাজারজাত করে থাকে। এছাড়া শিল্পে ব্যবহারের জন্যে বাল্ক আকারে এলপিজি বিক্রি করে ওমেরা।’

কোম্পানির সিইও আরো জানান, এলপিজি সংরক্ষণ এবং ব্যবহারকারীদের নিকট বিতরণের জন্য ওমেরার রয়েছে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন অবকাঠামোগত সুবিধা। ওমেরার রয়েছে ৯,০৫০ টন এলপিজি ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ৫টি ট্যাংক।
এছাড়া মোট ১০০০ টন ক্ষমতা সম্পন্ন ৩টি এলপিজি বহনকারী বার্জÑ যা আভ্যন্তরীণ নৌপথে এলপিজি পরিবহনে ব্যবহৃত হয়। পাশাপাশি ওমেরার রয়েছে ৩২টি এলপিজি পরিবহনকারী রোড ট্যাংকার যার প্রত্যেকটি ধারণ ক্ষমতা ১৭ টন। প্রতিদিন এক শিফটে ৬০,০০০ সিলিন্ডার বোতলজাত করার সক্ষমতা রয়েছে ওমেরার।

অনুষ্ঠানে ওমেরা পেট্রোলিয়ামের পরিচালক আজম জে চৌধুরী, তানজিল চৌধুরী, রিয়াজ আবু নাসের বাসান্তে, বাহাদিন মোহামেদ আবুল নাসের বাসান্তে, রিচার্ড ভারবোভে, প্রধান অর্থ কর্মকর্তা আকতার হোসেন সান্নামাত, কোম্পানি সচিব মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Zahangir
২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার, ১১:৪৮

শেয়ার বাজারের যে অবস্থা, তাতে করে আগামী কয়েক বছর নতুন কোনো কোম্পানিকে শেয়ার মার্কেটে তালিকাভূক্ত না করাই শ্রেয়।

অন্যান্য খবর