× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

এনআরসি নিয়ে আমরা চিন্তিত নই : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৯:২০

 ভারতের এনআরসি নিয়ে আমারদের কোনও চিন্তার কারণ নেই। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এবং ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর আমাকে বলেছেন, এনআরসি ভারতের অভ্যন্তরীন বিষয়। তাই এ নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনও কারণ নেই। আমরা ভারতের মন্ত্রীদের দেয়া বক্তব্য বিশ্বাস করি।  শুক্রবার কলকাতায় বাংলাদেশ বইমেলার উদ্বোধনের পরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন এ কথা বলেছেন। তবে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি নেতারা ক্রমাগত বলে আসছেন অবৈধ অভিবাসীদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে। এ নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, রাজনৈতিক কারণে হয়তো এসব বলা হচ্ছে। তবে আমরা মোদী ও জয়শঙ্করের কথায় বিশ্বাস রেখেছি। তিস্তা প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, আমরা আশা করি তিস্তা নিয়ে সমাধান ভারত আমাদের উপহার দেবে।
বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কলকাতায় ক্রিকেট খেলা দেখতে আসা নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছেন, সৌরভ গাঙ্গুলির মত একজন সম্মানীয় ব্যাক্তির আমন্ত্রনে শেখ হাসিনা কলকাতায় আসার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। আমি আশা করি নিশ্চয়ই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেখানে আসবেন। এবং পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে, এমনকি সারা ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক, যাকে নরেন্দ্র মোদী সোনালী দিন বলেছেন, সেই সোনালী দিনের বহিঃপ্রকাশ করবেন। বিভিন্ন রকম আমাদের সমস্যার সমাধান করবেন। বিশেষ করে তিস্তার সমস্যার সমাধানও আমাদের উপহার দেবেন। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদশের তালিকা থেকে একজন রোহিঙ্গাকেও মিয়ানমার ফেরত নেয়নি। তবে মিয়ানমার মানুষকে ধোঁকা দেবার জন্য মাঝে মাঝেই নানা কথা বলে। তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা স্বেচ্ছায় না যাওয়ার ফলে মাদক ও সন্ত্রাসী তৎপরতা বাড়ছে। সন্ত্রাসের কোনও সীমানা হয় না। তাই সন্ত্রাস বাড়লে মায়ানমারের যেমন ক্ষতি হবে তেমনি বাংলাদেশ সহ এই অঞ্চলের সকলের ক্ষতি হবে। ব্যাহত হবে উন্নয়ন কার্যক্রম। তাই এই অঞ্চলের শান্তি ও স্থিতিশীলতা আনার জন্য রোহিঙ্গা সমস্যার আশূ সমাধান প্রয়োজন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর