× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

ইয়াবাসহ আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে গ্রেপ্তার

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল থেকে | ৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ৩:৩৫

বরিশাল সিটি করপোরেশনের ২৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিচুর রহমান শরীফের ছেলে শহিদুল ইসলামকে (৪০) ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি দল। এ সময় তার সহযোগী সাব্বির হোসেন হারিছ (৩৫) নামে আরেকজনকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে তাদের গ্রেপ্তার করলেও বিষয়টি প্রকাশ পেয়েছে গভীর রাতে।

একটি সূত্র জানায়, গ্রেপ্তারের পর ডিবি পুলিশকে ম্যানেজ করতে বিভিন্ন মহল থেকে সুপারিশ আসতে থাকে। ফলে গ্রেপ্তার খবর কিছু সময় চাপা থাকে। কিন্তু ডিবি পুলিশ মাদক সংশ্লিষ্টতার ঘটনায় ছাড় দিতে নারাজ। তারা সকল তদবির ও প্রস্তাব নাকচ করে মামলার উদ্যোগ নেয়।

ডিবি পুলিশের একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করে জানিয়েছে, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের দায়িত্বশীল মহল মাদকের বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। বিশেষ করে পুলিশ কমিশনার এই বিষয়ে হার্ডলাইনে থাকায় কাউন্সিলরপুত্রকে মাদক মামলায় গ্রেপ্তার দেখাতে ডিবি পুলিশ কোন ধরনের গাফিলতি করেনি।

ডিবি পুলিশের অপর একটি সূত্র জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুজিত কুমরা গোমস্তার নেতৃত্বে একটি টিম শহরের ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর জাগুয়া খালপাড় সড়কে অভিযান চালিয়ে শের-ই বাংলা সড়কের মৃত আবদুল মজিদের ছেলে মো. সাব্বির হোসেন হারিছ (৩৫) এবং ২৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিচুর রহমান শরীফের ছেলে মো. শহিদুল ইসলাম শরীফকে (৪০) গ্রেপ্তার করে।

এ সময় তাদের শরীরে তল্লাশি চালিয়ে ২০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।
মধ্যরাতে মাদক মামলায় কাউন্সিরপুত্রকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

ডিবি পুলিশের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বলছেন, মাদক সম্পৃক্ততায় গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের ছেড়ে দেয়ার কোন সুযোগ নেই। কারণ সরকার ইতিমধ্যে মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছে। ফলে কাউকে ছাড় না দিয়ে যথাযথ আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর