× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

‘এরা শোবিজে আসে তারকাখ্যাতি পেতে’

বিনোদন

এন আই বুলবুল | ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৭:৪৮

আগামী বছর ভালোবাসা দিবসে মুক্তি পেতে যাচ্ছে রায়হান রাফীর নতুন ছবি ‘পরান’। সম্প্রতি পোস্টার প্রকাশের মাধ্যমে এই ঘোষণা দিলেন নির্মাতা। এ ছবিতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মিম, ইয়াশ রোহান ও শরীফুল রাজ। এ ছাড়া এতে দেখা যাবে ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রোজী সিদ্দিকীকে। তিনি অভিনয় করেছেন নেতিবাচক একটি চরিত্রে। রোজী সিদ্দিকী বলেন, এবারই প্রথম খল চরিত্রে অভিনয় করেছি। এর গল্প সুন্দর। অভিনয় করার মতো অনেক সুযোগ ছিল।
আমার চরিত্রটিও গুরুত্বপূর্ণ। তাই এমন চরিত্রে কাজ করেছি। সব মিলিয়ে সিনেমাটি উপভোগ্য হবে বলে মনে করছি। সিনেমায় নিয়মিত থাকবেন কী না জানতে চাইলে তিনি বলেন, গল্প ও চরিত্র ভালো হলে সিনেমায় নিয়মিত অভিনয় করতে আমার আপত্তি নেই। সর্বশেষ ২০১৬ সালে গৌতম ঘোষ পরিচালিত রোজী সিদ্দিকী অভিনীত ‘শঙ্খচিল’ সিনেমাটি মুক্তি পায়। এরপর তাকে আর অন্য কোনো সিনেমায় দেখা যায়নি। এদিকে এ সময়ে টিভি ধারাবাহিক নাটকের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন এ অভিনেত্রী। বর্তমানে এসএ টিভিতে তার অভিনীত ‘তুমি আছো তাই’, এনটিভিতে ‘ফ্যামিলি ক্রাইসিস’ ও দীপ্ত টিভিতে ‘মান-অভিমান’ নামের তিনটি ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে। টিভি ধারাবাহিক নিয়ে এ অভিনেত্রী বলেন, নাটকগুলোর প্রত্যেকটিতে আমার চরিত্র বেশ উপভোগ্য। অনেকে প্রশংসা করেছেন। চেষ্টা করছি চরিত্রগুলোতে নিজেকে আরো ফুটিয়ে তুলতে। এই সময়ে টিভি নাটকের মান কেমন হচ্ছে? এ প্রশ্নের উত্তরে রোজী বলেন, সব ক্ষেত্রে ভালো-মন্দ থাকে। আপনি কোনটা গ্রহণ করবেন সেটা আপনার ওপর নির্ভর করবে। যারা ভালো গল্প ও চরিত্রে কাজ করতে চান তারা সেসব নাটকেই অভিনয় করছেন। আবার অনেকেই হয়তো কাজের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য সব ধরনের নাটকে অভিনয় করছেন। আমি যে কাজগুলো করছি সেগুলোর মান ভালো বলতে পারি।
সম্প্রতি টিভি নাটকে শৃঙ্খলা ফেরাতে নতুন নীতিমালা প্রকাশ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নাট্যাঙ্গনের জন্য এটি ভালো একটি উদ্যোগ। প্রত্যেক সংসারেও একটা নিয়ম আছে। যেখানে সব কিছুতে নিয়ম মানা হচ্ছে আমরা শিল্পীরা সেখানে নিয়ম ছাড়া চলবো কেন? অনেক সময় দেখা যায় রাত ১০টার কাজ দুইটায় শেষ হচ্ছে। এগুলো আমাদের মধ্যে একটা ট্রেন্ড হয়ে গেছে। আবার অনেক সময় দেখা যায়, কিছু শিল্পী সঠিক সময়ে শুটিং স্পটে থাকে না। ফলে নির্মাতারা ক্ষতির মুখে পড়েন। চলতি সময়ের অনেক শিল্পী নানারকম বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। সোস্যাল মিডিয়ায় তাদের নিয়ে সমালোচানার ঝড় বয়ে যায়। এই বিষয়টিকে রোজী কিভাবে দেখছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তারকাদের নিয়ে সমালোচনা হবে এটা স্বাভাবিক। তবে এ সময়ে যাদেরকে নিয়ে সোস্যাল মিডিয়ায় ঝড় ওঠে তারা কি সত্যি শিল্পী? তারা যদি শিল্পী হয়ে থাকে তাহলে সুবর্ণা মুস্তাফা, রোকেয়া প্রাচীদের কি বলবো? যারা অন্যের কাঁধে ভর দিয়ে দু’চারটি কাজ করে। অথবা অতিথি পাখির মতো যাদেরকে বছরে কিছু সময়ে দেখা যায়। তারপর আবার আড়ালে চলে যায়। তারা আমার চোখে অ-শিল্পী। এই অ-শিল্পীদের নিয়ে আমি কিছু বলতে চাই না। এরা  কখনোই কাজকে ভালোবাসেনি। এরা শোবিজে আসে তারকাখ্যাতি পেতে।
এছাড়া কিছু জায়গাতে তাদের ডিমান্ড বাড়াতে। তাদেরকে কখনো প্রকৃত শিল্পীদের সঙ্গে তুলনা করা ঠিক না। আমি মনে করি আমাদের শোবিজে সৃজনশীল নির্মাতাদের একটু সচেতন হওয়া প্রয়োজন। প্রকৃত শিল্পীদের বাদ দিয়ে অনেকে তাদের নিয়ে কাজ করার জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়েন। এর ফলে নানা ঝামেলার সৃষ্টি হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর