× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

আইওআরএ’র সদস্য হতে পারেনি মিয়ানমার

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ১:০৫

বাংলাদেশের বিরোধীতার কারণে এ বছর মিয়ানমার ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশনের (আইওআরএ) সদস্য হতে চেয়েও পারেনি। আজ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

মিয়ানমার আইওআরএ’র সদস্যপদের জন্য আবেদন করেছিল। যদিও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার কয়েকটি দেশ মিয়ানমারের আবেদনের সমর্থন জানিয়েছে, সিএসও সভায় বাংলাদেশ সদস্যপদ আবেদনের বিরোধীতা করে বলেছে মিয়ানমারের অসহযোগিতা এবং রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রত্যাবাসনের প্রতিশ্রুতি পালনের ঘাটতি রয়েছে।

বাংলাদেশ আরও বলেছে, মিয়ানমার একটি দায়িত্বশীল রাষ্ট্র হওয়ার বিষয়ে তার ইচ্ছা প্রদর্শন করতে ব্যর্থ হয়েছে। দেশটির আন্তর্জাতিক মানদ- এবং বিধিগুলির প্রতি শ্রদ্ধার অভাব রয়েছে।

যেহেতু, আইওআরএ সনদের মৌলিক নীতিমালার অধীনে অনুচ্ছেদ ২ (গ) অনুযায়ী, সমস্ত স্তরের সকল বিষয় ও ইস্যুতে সিদ্ধান্ত ঐকমত্যের ভিত্তিতে নেয়া হবে, তাই বাংলাদেশের বিরোধীতার কারণে মিয়ানমারের সদস্যপদ আবেদন বাতিল এবং মুলতবি করা হয়।

২১তম ইন্ডিয়ান ওশান রিম এসোসিয়েশন (আইওআরএ) কাউন্সিল অফ সিনিয়র অফিসার্স (সিএসও) সভা সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে ৫-৭ নভেম্বর  অনুষ্ঠিত হয়।  আইওআরএ’র ২২ সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধি এবং ৯ সংলাপ অংশীদার এ সভায় অংশ নেয়। এ সভায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি প্রতিনিধি অংশ নেয়।

এ সভায় ২০১৯ সালের অক্টোবর থেকে ২০২১ সালের অক্টোবর পর্যন্ত ভাইস চেয়ারম্যান পদটি আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরবর্তী সময়ে ২০২১ সালের ২০শে অক্টোবর থেকে দুই বছরের মেয়াদে বাংলাদেশ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করবে। সংযুক্ত আরব আমিরাত আনুষ্ঠানিকভাবে ২০১৯ অক্টোবর থেকে ২০২১ এর মেয়াদে চেয়ারের দায়িত্বভার গ্রহণ করে।
এ সভায় অনেকগুলি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় এবং কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

বাংলাদেশ তৃৃতীয় আইওআরএ ব্লু-ইকোনমি মন্ত্রিসভা সম্মেলন সম্পর্কে প্রতিবেদনটিও উপস্থাপন করেছিল, যা ২০১৯ সালের ৫ই সেপ্টেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে আন্তরিকভাবে অংশ নেয়ার জন্য বাংলাদেশ সমস্ত সদস্য দেশ এবং সংলাপ অংশীদারদের ধন্যবাদ জানায়। ব্লু-অর্থনীতি বিষয়ক সম্মেলনের সফল আয়োজনের জন্য বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানানো হয় সভায় এবং ভারত মহাসাগর অঞ্চলে ব্লু-অর্থনীতি বিকাশের কেন্দ্রে ঢাকা ঘোষণাপত্র রাখার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর