× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

বাবরি মসজিদ মামলার রায়ের আগে ভারতজুড়ে সতর্কতা জারি

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১১:১১

অযোধ্যার রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ ভূমি সংক্রান্ত মামলার  রায়  প্রকাশের আগে ভারতের সব রাজ্যকে বিশেষ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে এডভাইসরি পাঠিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই এই বিতর্কিত মামলাল রায় ঘোষনার কথা সুপ্রিম কোর্টের।
সুপ্রিম কোর্টের বর্তমান প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ আগামী ১৭ নভেম্বর অবসর নেবেন। তার আগেই তিনি অযোধ্যা কাম বাবরি মসজিদ মামলার রায় দেবেন বলে জানা গেছে। গত মাসেই এই মামলার দীর্ঘ শুনানী শেষ হয়েছে। রায় বেরনোর আগে সংযত মন্তব্য করতে সব রাজনৈতিক দলগুলিকে বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মন্ত্রীদেরও তিনি কোনরকম বিতর্কিত মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকার কথা বলেছেন। একই বার্তা দেয়া হয়েছে যোগী আদিত্যনাথ সরকারের তরফেও।
এদিকে উত্তর প্রদেশ সরকারকে স্পর্শকাতর এই মামলার রায় বেরোনোর আগে নিরাপত্তামূলক সব রকমের সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবং এসএমএসের মাধ্যমে রায় বেরোনোর পর যাতে কোনোরকম গুজব ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্যও ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।
ইতিমধ্যে অযোধ্যায় জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা। এখনও পর্যন্ত যা নিরাপত্তাবাহিনী মোতায়েন হয়েছে, তাতে কার্যত দুর্গে পরিণত হয়েছে অযোধ্যা। জানা যাচ্ছে, ৪০ কোম্পানি আধা সেনা (প্রায় ৪০০০) মোতায়েন হয়েছে। এর মধ্যে ১৬ কোম্পানি সিআরপিএফ, ৬ কোম্পানি আইটিবিপি, সিআইএসএফ, এসএসবি। শুধু কয়েক হাজার সেনা কর্মী মোতায়েন নয়, অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে কিছু অস্থায়ী জেলও তৈরি করতে চলেছে যোগীর প্রশাসন। জানা গেছে অম্বেদকরনগরের কলেজগুলিকে জেলে পরিণত করা হচ্ছে।
এক নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, বিভিন্ন কলেজে ৮টি অস্থায়ী জেল বানানো হচ্ছে। এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায় যাইহোক, তাতে যেন কোথাও শান্তিভঙ্গ না হয়। দেশজুড়ে এ ব্যাপারে সকলকে সতর্ক থাকতে  বলেছেন তিনি। বৃহস্পতিবার দলীয় বৈঠকের পরে সাংবাদিক সম্মেলনে মমতা বলেছেন, রায় কী হবে না হবে, জানি না। কিন্তু রায় বেরোলে যাতে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি না হয়, সেজন্য দলের সকলকে সতর্ক থাকতে বলেছি। শান্তি বজায় রাখতে বলেছি। আর সংবাদমাধ্যমকে এ বিষয়ে যা বলার, তা শুধু আমি বলব। আর কেউ বলবেন না। দলের সকলকে তা জানিয়ে দিয়েছি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর