× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

নাগেশ্বরীতে ১৮টি বিএস কোয়ার্টার পরিত্যক্ত

বাংলারজমিন

নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি | ৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৬:৪৮

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইউনিয়ন ভিত্তিক বিএস কোয়ার্টারগুলো অযত্নে অবহেলায় পরিত্যক্ত হয়ে জরাজীর্ণ হয়ে পড়ে থাকায় রাতের আঁধারে চলছে অসামাজিক কার্যকলাপ। উপজেলার পৌরসভাসহ ১৫টি ইউনিয়নে ২ একর ৯৩ শতক জমির ওপর নির্মিত দুই রুম বিশিষ্ট ১৮টি বিএস কোয়ার্টার শুধু স্মৃতি হয়ে আছে নেই কোনো কার্যক্রম। অযত্নে অবহেলায় পরিত্যক্ত হয়ে জরাজীর্ণ অবস্থায় এসব ভূতুড়ে কোয়ার্টারগুলোতে রাতের আঁধারে অসামাজিক কার্যকলাপ মদ, গাঁজা সেবনসহ নানা ধরনের অপকর্ম চলছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। তারা আরো জানায় যে, দিনের বেলায় কোয়ার্টারগুলোতে আশপাশের লোকজন খড়কুটো, গরু ছাগল, হাঁস-মুরগি রাখাসহ গৃহস্থালীর নানা কাজে ব্যবহার করলেও রাতে চলে অসামাজিক কার্যকলাপ। ১৯৯০/৯১ সালে ইউনিয়ন ভিত্তিক কৃষি উপ-সহকারী কর্মকর্তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে থাকার জন্য সরকার কোটি কোটি টাকা ব্যয় করে প্রয়োজনীয় নলকূপ, বাথরুমসহ দুটি রুম বিশিষ্ট বিএস কোয়ার্টারগুলো নির্মাণ করলেও তা বর্তমানে কোনো কাজে আসছে না। এসব বিএস কোয়ার্টারগুলো কৃষি উপ-সহকারী কর্মকর্তাগণ ব্যবহার না করায় অনেকে উপজেলা সদরে বাসা ভাড়া নিয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে বসবাস করেন। ফলে ওই সকল বিএস কোয়ার্টারগুলো পরিত্যক্ত হয়ে পড়েছে। সরজমিন গিয়ে দেখা যায় অধিকাংশ বিএস কোয়ার্টারগুলোর জানালা-দরজা নেই, ভেঙে পড়েছে।
অফিস সহকারী মানিক চন্দ্র জানান, তিনি পরিবার নিয়ে বসবাস অযোগ্য একটি কোয়ার্টারে কোনো রকমভাবে বসবাস করছেন। এ ব্যাপারে নাগেশ্বরী উপজেলা কৃষি অফিসার শামসুজ্জামানের কাছে পরিত্যক্ত বিএস কোয়ার্টার কতটি জানতে চাইলে তিনি বলেন ১৫টি ইউনিয়নে ১৮টি বিএস কোয়ার্টার রয়েছে কিন্তু তা ব্যবহার করা অনপুযোগী। প্রতি বছরে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট পরিত্যক্ত বিএস কোয়াটারগুলো মেরামত করার জন্য লিখিতভাবে অভিযোগ করলেও কোনো সংস্কার হচ্ছে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর