× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার
সুপার ক্লাসিকোতে ব্রাজিলকে হারালো আর্জেন্টিনা

ফিরেই নায়ক লিওনেল মেসি

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, ৮:৩৪

রিয়াদের কিং সউদ বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে উপস্থিত সাড়ে ২২ হাজার দর্শক। উচ্ছ্বসিত সমর্থকদের হাতে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার পতাকা। ফুটবলের ‘সুপার ক্লাসিকো’ বলে কথা। বিশ্ব ফুটবলের জনপ্রিয় দুই দল ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার দ্বৈরথ। এতে যথারীতি ছিল সমর্থকদের বাড়তি আবেগ- উত্তেজনা। মাঠের খেলায়ও ছিল নাটকীয়তা। গ্যালারিতে শোভা পাচ্ছিল লিওনেল মেসির ব্যানার। মেসি.. মেসি... রবে মুখরিত হয়ে উঠছিল গ্যালারি।
শুক্রবার ব্রাজিলের বিপক্ষে এ ম্যাচ দিয়েই তিন মাস পর মাঠে ফেরেন আর্জেন্টাইন সুপার স্টার লিওনেল মেসি। গত জুনে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনাল থেকে বাদ পড়েছিল তার দল। আর ম্যাচের পর বেঁফাস মন্তব্য করে তিন মাস নিষিদ্ধ হন মেসি। প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে শোধ নিলেন আর্জেন্টাইন বাঁ পায়ের জাদুকর। শুক্রবার রিয়াদে তার একমাত্র গোলে ব্রাজিলকে ১-০ ব্যবধানে হারায় আর্জেন্টিনা। ব্রাজিলের বিপক্ষে দীর্ঘ ৭ বছর পর গোল পেলেন মেসি। সর্বশেষ ২০১২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রীতি ম্যাচে ব্রাজিলের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার ৪-৩ ব্যবধানের জয়ে এক গোল পান মেসিও। পরের চার সাক্ষাতে গোলের দেখা পাননি আর্জেন্টিনার এ শীর্ষ তারকা। নিজেদের শেষ পাঁচ প্রীতি ম্যাচে অপরাজিত থাকলো কোচ লিওনেল স্কালোনির আর্জেন্টিনা। এর মধ্যে মেক্সিকো, ইকুয়েডর আর ব্রাজিলের বিপক্ষে জয় আর চিলি ও জার্মানির সঙ্গে ড্র করে আলবিসেলেস্তে খ্যাত আর্জেন্টাইনরা। কোপা আমেরিকা ট্রফি জয়ের পর ব্রাজিল নিজেদের শেষ পাঁচ ম্যাচে জয়হীন। তিনটিতে ড্র আর দুটিতে পরাজয় তিতের কৌশলকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে।
মেসি অ্যান্ড কোং যেমন খেলেছে তাতে জয়ের ব্যবধানটা আরো বড়ো হতে পারতো। মাত্র ৩৪ শতাংশ বল দখল নিয়েও প্রতিপক্ষের গোলবারে ১৪টি শট নিয়েছে আর্জেন্টিনা। অন-টার্গেটে শট ৮টি। ৬৪ শতাংশ বল দখল রেখে ব্রাজিলের অন টার্গেটে শট মাত্র একটি। আর্জেন্টিনার হাই-প্রেসিং ফুটবলের সামনে ছন্দহীন মনে হয়েছে ব্রাজিলকে। ম্যাচে ব্রাজিলের সেরা তারকা গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকারই। লিভারপুলের এ গোলরক্ষক ম্যাচে ৭টি সেভ করেছেন। গ্যাব্রিয়েল জেসুস, রবার্তো ফিরমিনো, উইলিয়ানদের নিয়ে গড়া আক্রমণভাগ ছিল নিষ্প্রভ। জেসুস তো পেনাল্টি পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে পারলেন না। নবম মিনিটে পেনাল্টি মিস করেন জেসুস। উল্টো ১৩তম মিনিটে পেনাল্টি থেকেই লিড নেয় আর্জেন্টিনা। ডি বক্সে মেসিকে ফাউল করেন আলেক্স সান্দ্রো, রেফারি বাজান পেনাল্টির বাঁশি। মেসির নেয়া স্পটকিক ঠেকিয়ে দিয়েছিলেন অ্যালিসন। কিন্তু ফিরতি বলে ঠিকই গোল আদায় করে নেন বার্সেলোনা তারকা। ব্রাজিলের বিপক্ষে এটি তার পঞ্চম গোল। আর ক্যারিয়ারের ৬৯তম। এরপর মেসির একটি শট ও ফ্রি-কিক ঠেকিয়ে দেন অ্যালিসন। দ্বিতীয়ার্ধে ডিবক্সে সুবিধাজনক জায়গায় বল পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি আর্জেন্টিনার নতুন সেনসেশন লাওতারো মার্টিনেজ। তবে মেসির সঙ্গে ৪-৪-২ ফরমেশনে লাওতারোর রসায়ন উপভোগ্য ছিল। স্কোয়াডে থাকলেও ব্রাজিলের বিপক্ষে নামার সুযোগ হয়নি পাওলো দিবালা ও সার্জিও আগুয়েরোর। ব্রাজিলের জার্সিতে রিয়াল মাদ্রিদের ১৮ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড রদ্রিগোর অভিষেক হয়।
‘ব্রাজিলের বিপক্ষে জয় সবসময়ই ভালো’

দুই বছর পর ব্রাজিলকে হারালো আর্জেন্টিনা। আর ম্যাচের পর আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি বলেন, ‘ব্রাজিলকে হারানো সবসময়ই ভালো ব্যাপার। যখন আপনি জেতেন ভালো খেলেই জেতেন। আমাদের কোচের পরিকল্পনা মাঠে ভিন্নভাবে বাস্তবায়ন হয়েছে।’ ম্যাচের এক পর্যায়ে পার্শ্ব রেখায় ব্রাজিল কোচ তিতে সঙ্গে বিতর্কে জড়ান মেসি। পরে তিতে বলেন- মেসি আমাকে বলেছিল চুপ করো। আমিও তাকে উত্তরে তাই বলেছি। আরো শক্ত রেফারি দরকার। তাকে কার্ড দেখানো উচিৎ ছিল। আগামীকাল উরুগুয়ের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার আরেকটি প্রীতি ম্যাচ রয়েছে। ইসরাইলের মাঠে ম্যাচটি আয়োজন নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। তবে ইসরাইলি সংবাদমাধ্যমের দাবি ম্যাচটি যথাসময়ে নির্ধারিত ভেন্যুতেই হবে। মেসি জানিয়েছেন, উরুগুয়ের বিপক্ষেও তিনি খেলতে চান। আগামী মার্চে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব শুরু হবে। মেসি বলেন, ‘মনে হচ্ছে এবার একটা দারুণ দল পেতে যাচ্ছি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর