× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার
আহত ১৫, দু'জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

লিবিয়ায় বিমান হামলায় নিহত বাংলাদেশির পরিচয় শনাক্ত

অনলাইন

মিজানুর রহমান | ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ১২:০৫
ছবি- এএফপি

লিবিয়ায় বিমান হামলায় নিহত বাংলাদেশির পরিচয় নিশ্চিত হয়েছে ত্রিপলিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস। রাতে এক বার্তায় রাষ্ট্রদূত শেখ সিকান্দার আলী মানবজমিনকে জানান, হতভাগ্য বাংলাদেশির নাম আবুল হাছান ওরফে বাবুলাল বলে নিশ্চিত হয়েছেন তারা। তিনি রাজশাহী জেলার বাসিন্দা। তবে তার পাসপোর্টে থাকা বিস্তারিত ঠিকানা (পিতার নাম, গ্রাম, থানা ইত্যাদি) দূতাবাস এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রকাশ করেনি।

রাষ্ট্রদূত আরও জানান, ড্রোন হামলায় আহত ১৫ বাংলাদেশির মধ্যে কুমিল্লার ইমন এবং ঝিনাইদাহের মোহাব্বত আলীর অবস্থা গুরুতর। আশংকাজনক অবস্থায় আইসিইউতে তাদের চিকিৎসা চলছে। হামলার বিস্তারিত জানিয়ে মানবজমিনকে পাঠানো এক বার্তায় রাষ্ট্রদূত বলেন- ১৮ই নভেম্বর সকালে ত্রিপলীর ওয়াদি রাবিয়া এলাকার একটি বিস্কুট ফ্যাক্টরিতে ড্রোন হামলায় ৬ জন শ্রমিক নিহত এবং ৩০ জন আহত হয়েছেন বলে খবর পান।

দূতাবাসের তরফে তাৎক্ষনিকভাবে ‘সানবুলাহ বিস্কুট ফ্যাক্টরি’ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তারা জানান, হতাহত সকল শ্রমিককে ত্রিপলীর বিভিন্ন হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
এ প্রেক্ষিতে দূতাবাসের প্রতিনিধিরা তাজুরা হার্ট হসপিটাল, ত্রিপলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সারে জাওইয়া কেন্দ্রীয় হাসপাতাল এবং আবু সেলিম হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। বিভিন্ন হাসপাতালে ড্রোন হামলায় নিহত ৬ জনের লাশ ছিল। এরমধ্যে রাজশাহীর আবুল হাছান ওরফে বাবুলাল নামে একজন বাংলাদেশী নাগরিকের মৃতদেহ সনাক্ত করা হয়। নিহত অন্য ৫ জনের মধ্যে দুই জন লিবীয়ার নাগরিক এবং ৩ জন আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের শ্রমিক বলে লিবিয়া কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ দূতাবাসকে নিশ্চিত করেছে।

ওই হামলায় আহত হয়ে হাসপাতালগুলোতে ভর্তিদের মধ্যে ১৫ জন বাংলাদেশী নাগরিক রয়েছেন উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত জানান, আহত বাংলাদেশীদের মধ্যে কুমিল্লার মোঃ ইমন এবং ঝিনাইদাহের মোহাব্বত আলীর অবস্থা আশংকাজনক। তারা বর্তমানে ত্রিপলী মেডিকেল কলেজের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এর আগে সন্ধ্যায় রাষ্ট্রদূত মানবজমিন প্রতিবেদকের সঙ্গে টেলিফোন আলাপে বলেছিলেন- এক বাংলাদেশি নিহত এবং ১৫ বাংলাদেশি আহত হওয়ার তথ্য সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছে হাসপাতালগুলো পরিদর্শনে যাওয়া দূতাবাস টিম।
উল্লেখ্য লিবিয়ান কতৃপক্ষের বরাতে পাঁচ বাংলাদেশিসহ অন্তত সাত জন নিহত হয়েছেন মর্মে সন্ধ্যায় রিপোর্ট প্রকাশ করে বার্তা সংস্থা এএফপি। তাদের রিপোর্টে লিবিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মালেক মার্সেতকে উদ্বৃত করে বলা হয়, নিহতদের মধ্যে পাঁচজন বাংলাদেশি ও দুই জন লিবীয় রয়েছেন। ওই হামলার ঘটনায়
অনলাইনে একটি ভিডিও ছড়িয়ে যায় মুহুর্তেই। যাতে দেখা যায়, পায়ে আঘাত পাওয়া কয়েকজনকে ব্যান্ডেজ পরিয়ে স্ট্রেচারে করে এম্বুলেন্সে তোলা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের এপ্রিল থেকে হাফতার নেতৃত্বাধীন মিলিশিয়াদের সঙ্গে লিবিয়া সরকারের সংঘাত চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর