× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা ইলেকশন কর্নার মন ভালো করা খবরসাউথ এশিয়ান গেমস- ২০১৯
ঢাকা, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

পড়াশোনা শেষে বিদেশিদের চাকরির সুযোগ কঠিন হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে

এক্সক্লুসিভ

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৬:৫৯

যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা শেষে চাকরির সুযোগ কঠিন হতে চলেছে বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য। আগামী বছর থেকে পড়াশোনা শেষে চাকরি জুটিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে এক বছর বেশি থাকার সুযোগ সংকুচিত করার প্রস্তুতি নিচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে কোনো আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী তার পড়াশোনা শেষে অপশনাল প্র্যাকটিক্যাল ট্রেইনিং (ওপিটি) কর্মসূচির আওতায় চাকরি জুটিয়ে এক বছর অতিরিক্ত অবস্থান করতে পারেন। বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রকৌশল ও গণিত বিভাগের শিক্ষার্থীরা এই সময়সীমা আরো দুই বছর বাড়িয়ে সর্বোচ্চ তিন বছর অবস্থান করতে পারেন। তবে ট্রাম্প প্রশাসনের কঠোর অভিবাসন নীতির আওতায় সে সুযোগ হারাতে যাচ্ছে তারা। এ খবর দিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

যুক্তরাষ্ট্রের ওপিটি কর্মসূচি দেখভালের দায়িত্বে রয়েছে অভিবাসন ও কাস্টমস প্রয়োগ সংস্থা (আইসিই)। আগামী বছরের জন্য ট্রাম্প প্রশাসনের এ বিষয়ক প্রস্তাবিত নীতিমালা অনুসারে, আইসিই ‘এফ’ ও ‘এম’ ভিসার আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে অনভিবাসী শিক্ষার্থীদের জন্য বিদ্যমান ওপিটি সুবিধা সংশ্লিষ্ট নিয়ম সংশোধন করবে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, এই নীতিমালা বাস্তবায়িত হলে, ওপিটি অনুমোদন পাওয়া কঠিন হয়ে পড়বে বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য।
প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রে ডিগ্রি অর্জনের জন্য পড়াশোনা করা ব্যক্তিদের ‘এফ’ ভিসা দেয়া হয় ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ শিক্ষার্থীদের দেয়া হয় ‘এম’ ভিসা।

বৈশ্বিক অভিবাসন আইন সংস্থা ফ্রাগোমেন এর মিচেল ওয়েক্সলার জানান, আসন্ন নীতিমালা ২০২০ সালের আগস্ট মাসে প্রকাশিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এতে বর্তমানে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য বিদ্যমান ওপিটি সেবা কঠোর করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর