× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার

৩ দিন ঘিরে রাখার পর জানা গেলো বোম নয়

অনলাইন

মেহেরপুর প্রতিনিধি | ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, ১:৫৪

মেহেরপুর শহরের জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সামনে রাখা বোমাটি সদৃশ বস্তুটি নিষ্ক্রিয়ের সময় শব্দ হলেও পুলিশ বলছে এটি বোমা নয়। এর মধ্যে বালি ভরা ছিলো। সর্তকতা হিসাবে গত তিনদিন ধরে এটি ঘিরে রেখেছিলো পুলিশ।

এটি দেখতে পেে খুলনা থেকে ডাকা হয় র‌্যাবের বোমা বিশষজ্ঞ দলকে। অত্যাধুনিক যন্ত্র তাদের কাছে না থাকায় তারাও ফিরে যান।

গতকাল ঘটনাস্থলে সেনা সদস্যদের বোমা বিশেষজ্ঞ দল আসার কথা থাকলেও তারা আসেননি। পরে আজ সকাল সাড়ে ১০টার সময় ঘটনাস্থলে আসে কাউন্টার টেরিরিজম ও এন্টি টেরিরিজমের দু’টি দল। পরে তারা বোমা সাদৃশ্য বস্তুটিকে নিষ্ক্রিয় করে।
যার নেতৃত্বে ছিলেন ইন্সপেক্টর মোদাচ্ছের হোসেন ও ইসরাফিল হোসেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জাহিদুল ইসলাম জানান, এটি বোমা নয়। তবে নিষ্ক্রিয়ের সময় একটি শব্দ হয়ে থাকে। সেই শব্দই আপনারা পেয়েছেন। কেউ আতঙ্ক সৃষ্টির জন্য এটি রেখে যেতে পারে। আর বোমার পাশে রাখা আনসারুল্লার বাহিনীর লেখা চিরকুটের বিষয়ে তিনি বলেন, এ বিষয়টি এখনও বলা যাচ্ছে না, তবে ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এদিকে মেরেহপুর শহরে একটি সার্কিট যুক্ত বোমা দেখে মেহেরপুর শহর জুড়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। তিনদিন ধরে বোমা সাদৃশ্য বস্তুটি উদ্ধার কিংবা বিস্ফোরণ কোনটাই না করতে পারায় এ নিয়ে নানাগুঞ্জন তৈরী হয় মানুষের মনে।

অবশেষে কাউন্টার টেরিরিজম ও এন্টি টেরিরিজমের দু’টি দল বোমা সাদৃশ্য বস্তুটির বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। আসলে এটি কোন বোমা নয়। সার্কিট থেকে বিদ্যুতের নেগেটিভ পজেটিভ একত্রিত করা হলে শব্দ হয়েছে। এর ভেতর ছিলো শুধুই বালি ভরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর