× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার
সীমানা প্রাচীর নির্মাণে বাধা

বড়লেখায় প্রবাসী পরিবারকে মামলা দিয়ে হয়রানি

বাংলারজমিন

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি | ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ৮:২৬

বড়লেখা উপজেলার নিজ বাহাদুরপুর ইউনিয়নের পকুয়া গ্রামের ফ্রান্স প্রবাসী আনোয়ার হোসেন তার দুই ভ্রাতা আলতাফ হোসেন ও টিপু কবিরের পারিবারিক গোরস্থান সংলগ্ন ভূমিতে পাকা ঘর তৈরি ও বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে দেয়া হচ্ছে না। প্রতিপক্ষের বাধার মুখে গত ২ মাস ধরে নির্মাণকাজ ঝুলে রয়েছে। ভূমি জবর দখলের হীন স্বার্থে প্রতিপক্ষের তাজুল ইসলাম গংরা মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে প্রবাসী এ পরিবারকে। তাদের হুমকি-ধমকিতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে নিরীহ পরিবারটি। সরজমিন এলাকায় গিয়ে জানা গেছে, উপজেলার পকুয়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালিকের ছেলে আলতাফ হোসেন, কবির হোসেন, মৃত হোছেন আলীর ছেলে তাজুল ইসলাম ও আব্দুল হাছিব যৌথভাবে পকুয়া মৌজার ৮০০ নং দাগের কবরস্থান শ্রেণির ২৭ শতাংশ ভূমির মৌরসী মালিক। সমপ্রতি আলতাফ হোসেন, ফ্রান্স প্রবাসী আনোয়ার হোসেন ও টিপু কবির কবরস্থান সংলগ্ন নিজস্ব রেকর্ডীয় ভূমিতে বাড়ি নির্মাণ ও কবরস্থানের দক্ষিণ অংশে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ শুরু করলে কবরস্থানের অপর অংশীদার তাজুল ইসলাম, আব্দুল হাছিব গংরা বাধা-নিষেধ করেন। স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় তারা আলতাফ হোসেন গংদের ৪-৫ শতাংশ ভূমি আত্মসাতের পাঁয়তারা চালান। ভূমি জবর-দখল করতে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন।
নিজস্ব ভূমির গাছপালা কেটে নেয়াসহ প্রাণে হত্যার হুমকি-ধমকিতে প্রবাসী পরিবারটি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। প্রতিপক্ষের ভয়ে ফ্রান্স প্রবাসী আনোয়ার হোসেন অনেকটা চুপিসারে দেশ ত্যাগ করতে বাধ্য হন। ভুক্তভোগী আলতাফ হোসেন জানান, তাজুল ইসলাম, আব্দুল হাছিব গংরা তাদের মালিকাধীন মৌরসী ভূমি আত্মসাৎ করার লক্ষ্যে থানায় ও আদালতে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন। গোরস্থানের ২৭ শতাংশ ভূমির একাংশ উত্তর আবর্তের সরকারি রাস্তায় ঢুকিয়ে দক্ষিণ দিকের আমাদের ভূমি জবরদখলের পাঁয়তারা চালাচ্ছেন। গত ইউপি নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় আমার নির্বাচনী প্রতিপক্ষ আমাদের কবরস্থানে যৌথ অংশীদারদের দিয়ে প্রতিশোধ নিতে উঠেপড়ে লেগেছে। এব্যাপারে তাজুল ইসলাম জানান, তিনি এ ভূমি নেয়ার জন্য মামলা মোকদ্দমা করেননি কিংবা জবর দখলেরও চেষ্টা চালাননি। যা করছেন তা শুধুমাত্র কবরস্থান রক্ষার স্বার্থেই করছেন।


অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর