× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২০ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার

খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে সরকারের কিছু করার নেই: কাদের

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম থেকে | ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ৮:২২

‘শেখ হাসিনার আমলে বিচার বিভাগ পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করছে। খালেদা জিয়ার মামলা দুর্নীতির মামলা। জামিন হবে কিনা এটা আদালতের এখতিয়ার। এখানে সরকারের করার কিছু নেই। রাজনৈতিক মামলা হলে সরকারের কাছে আবেদন করলে সরকার বিবেচনা করতে পারতো।’ এসব কথা বলেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি। তিনি বলেন, ‘বিএনপি আইন মানে না, আদালত মানে না। বিচারের রায় মানে না। আদালতের উপর চাপ দিতে কোর্ট প্রাঙ্গণকে হাঙ্গামা করে রণাঙ্গনে পরিণত করে।’ এই বিএনপি’র হাতে দেশ কী নিরাপদ থাকবে? বিএনপি’র রাজনীতি ভুলের চোরাবালিতে পরিণত হয়েছে।
বিএনপি এখন পথ হারিয়ে দিশাহারা পথিকের মতো। বিএনপি দুর্বার আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে চায়।  বিএনপি’র আন্দোলনের হুমকিতে সরকার ভয় পায় না। এগারো বছর ধরে আন্দোলনের হাঁকডাক শোনা যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে এসে এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে সারা দেশে শুদ্ধি অভিযান চলছে।  শেখ হাসিনার এই শুদ্ধি অভিযানের জালে কে যে কখন আটকা পড়েন। দেখে শুনে সব দুর্নীতিবাজকে গ্রেপ্তার করা হবে, কেউ বাদ যাবে না।’ আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারীদের স্থান নেই জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আওয়ামী লীগে শেখ হাসিনা ছাড়া কেউ অপরিহার্য নয়। কেউ পদ-পদবিকে ব্যক্তিগত তালুক ভাববেন না। জমিদারী শেখ হাসিনার আমলে চলবে না।

সুবিধাবাদীদের নিয়ে দল ভারি করবেন না। আওয়ামী লীগে অনেক নিবেদিতপ্রাণ কর্মী আছে, বাইরের লোক ভাড়া করার দরকার নেই।   কুড়িগ্রাম জেলা স্টেডিয়ামে  কাউন্সিলের উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন এমপি, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি, বিশেষ অতিথি আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি. এম মোজাম্মেল হক। বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় নেতা মীর্জা আজম এমপি, প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এমপি, কুড়িগ্রাম-১ আসনের সংসদ সদস্য আছলাম হোসেন সওদাগর, কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য এমএ মতিন, জেলা আওয়ামী লীগের  সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাফর আলী প্রমুখ। কাউন্সিলে সভাপতিত্ব করবেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিনুল ইসলাম মঞ্জু মণ্ডল। সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতা  জিল্লুর রহমান টিটু। এর আগে ২০১৩ সালের ৬ই ফেব্রুয়ারি কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর