× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ঢাকা সিটি নির্বাচন- ২০২০ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২০ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার

উল্লাপাড়ায় গৃহবধূর চুল কাটার মামলায় আওয়ামী লীগ নেতা রিমান্ডে

এক্সক্লুসিভ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি | ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, ৭:০০

উল্লাপাড়ায় বটি দিয়ে এক গৃহবধূর চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলার প্রধান আসামি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আবদুর রশিদকে ৩ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। তদন্ত কর্মকর্তা উল্লাপাড়া মডেল থানার এসআই হাফিজুর রহমান জানান, ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছিল, আদালত ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। গত বৃহস্পতিবার উল্লাপাড়া আমলি আদালতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নজরুল ইসলাম রিমান্ড শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। এর আগে মঙ্গলবার সকালে একই আদালতে আব্দুর রশিদ আত্মসমর্পণ করার পর বিচারক তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। ওই দিনই আদালতে রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছিল বলেন, এসআই হাফিজুর রহমান। এ মামলার অন্য ৪ আসামি এখনো পলাতক রয়েছে। রোববার এ ঘটনায় কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা ১১ই ডিসেম্বরের মধ্যে জানাতে সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও উল্লাপাড়া থানাকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। ওই দিন এক আইনজীবী গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ তুলে ধরে আদালতের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে আদালত ওই নির্দেশনা দেন।

আদালতের এ নির্দেশনার পর সোমবার সকালে উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুজ্জামান ও থানার ওসি শাহীন শাহ পারভেজ ওই গৃহবধূর বাড়িতে যান এবং তাদের পরিবারের খোঁজ-খবর নেন। তাদের নিরাপত্তায় রোববার রাত থেকে বাড়িতে একজন এসআইর নেতৃত্বে পুলিশ পাহারা বসানো হয়েছে। ১১ই ডিসেম্বর পুলিশ সিরাজগঞ্জ সুপারের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে হাইকোর্টে মামলার অগ্রগতি বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে।  

অভিযুক্ত ব্যক্তি উপজেলার উধুনিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ। গত ২৫শে নভেম্বর রাতে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ২ সন্তানের জননী ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে ২রা ডিসেম্বর উল্লাপাড়া মডেল থানায় ওই আওয়ামী লীগ নেতা ও তার চার সহযোগীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। মামলার অপর আসামিরা হলো- গজাইল গ্রামের মোজাহারের ছেলে মুনসুর (৩৮), বাহের প্রামাণিকের ছেলে আব্দুস সালাম (৪৫), নাসির উদ্দিন (৪০) ও শহিদুল ইসলাম (৩২)। ওই নারীর অভিযোগ, ২৫শে নভেম্বর সন্ধ্যায় তিনি তার এক আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার জন্য ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলের খোঁজে বের হন। পথিমধ্যে একই গ্রামের সাইফুল ইসলামের বাড়ির পাশে উধুনিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ ও তার চার সহযোগী ওই নারীর পথরোধ করেন। এ সময় সাইফুল ইসলামের সঙ্গে তাকে আপত্তিকর অবস্থায় পাওয়া গেছে বলে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করেন তারা। এতে গ্রামের লোকজন ছুটে এলে তাদের সামনে তাকে বিবস্ত্র করে মারপিট করা হয়। পরে কয়েকশ লোকের সামনে বটি দিয়ে তার মাথার চুল কেটে দেয়া হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর