× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শনিবার
ঢাকায় জালালাবাদের বৈদেশিক সম্মেলন

বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি বন্ধের দাবি

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার, ৮:৫৬

ঢাকায় জালালাবাদ এসোসিয়েশনের বৈদেশিক নির্বাহী সম্মেলনে একটি দাবির প্রতি প্রায় অভিন্ন অবস্থান ব্যক্ত করেছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত প্রবাসীরা। তা হলো- দেশের বিমানবন্দরে প্রবাসী হয়রানি বন্ধ করা। জালালাবাদের প্রতিনিধিরাও বলেন- প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রীর সুস্পষ্ট নির্দেশনার পরও হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রবাসীদের হয়রানি বন্ধ হয়নি বরং কোন কোন ক্ষেত্রে পরোক্ষ যন্ত্রণা বেড়েছে। হয়রানির করুন কাহিনীগুলো ওঠে আসে নন-রেসিডেন্ট বাংলাদেশি-এনআরবিদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিদের বক্তব্যেও। সেখানে বলা হয়- স্বাধীনতার ৪৯ বছরে বাংলাদেশের যে অর্থনৈতিক অগ্রগতি হয়েছে তাতে বড় অবদান রেমিটেন্স যোদ্ধা প্রবাসীদের। গ্রামাঞ্চলের উন্নতিতেও প্রবাসীদের তাৎপর্যপূর্ণ ভুমিকা রয়েছে। কিন্তু দেশে এসে প্রবাসীরা কখনও কাঙ্খিত মর্যাদা পান না। নানারকম নেতিবাচক স্মৃতি সঙ্গে করে তাদের কর্মস্থলে ফিরতে হয়, যা অনাকাঙ্খিত।
রাজধানীর গুলশানের একটি অভিজাত হোটেলে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি একে আবদুল মুবিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী ওই সম্মেলনের বিভিন্ন সেশনে সরকারের মন্ত্রী, সচিব ছাড়াও এসোসিয়েশনের সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্ধ এবং বিশিষ্টজনরা বক্তব্য রাখেন। তাদের আলোচনায় প্রস্তাবিত জালালাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রমসহ সংগঠনের জনকল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডের বিভিন্ন দিক ওঠে আসে। সম্মেলনে বাংলাদেশের বিশেষত: সিলেটের সমৃদ্ধ সংস্কৃতিকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে দেয়ার তাগিদ দেয়া হয়। সংগঠনের বৈদেশিক শাখার নেতাদের অংশগ্রহণে ঢাকায় প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলন মনোজ্ঞ সন্ধ্যার মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর