× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার

বিএনপি নালিশনির্ভর দলে পরিণত হয়েছে- ওবায়দুল কাদের

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২১ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ১০:০২

বিএনপি নালিশনির্ভর দলে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, যেকোনো ব্যাপারে অভিযোগ ও নালিশ করা তাদের মজ্জাগত হয়ে গেছে। সিটি নির্বাচন নিয়ে বিএনপি ছাড়া আর কেউ অভিযোগ করবে না। কারণ বিএনপির রাজনীতিই হচ্ছে অভিযোগ আর নালিশের। গতকাল সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক ইস্যুতে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। বাংলাদেশের সবচেয়ে ব্যর্থ বিরোধীদল হচ্ছে বিএনপি মন্তব্য করে তিনি বলেন, তারা রাজপথে আন্দোলন করে বিরোধীদল হিসেবে সফলতা পায়নি। নির্বাচনেও তারা পরাজিত হয়েছে, ব্যর্থ হয়েছে। ভোট কারচুপির অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা ভোট কারচুপির কথা ভোট গণনা পর্যন্ত বলতে থাকবে।
এটা তাদের পুরনো অভ্যাস। চট্টগ্রাম, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে জিতেই গেছে। তারপরও দেখা গেছে তাদের প্রার্থী রাস্তায় বসে গেছে ভোট কারচুপির প্রতিবাদে।
ধানের শীষে গণজোয়ার এসেছে এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, ধানের শীষের গণজোয়ার এটা দিবাস্বপ্নের মতো, এর কোনো বাস্তবতা নেই। ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে বোঝা যাবে গণজোয়ার কোন দিকে। গণজোয়ার ধানের শীষের পক্ষে না নৌকার পক্ষে, সেটা সেদিন প্রমাণ হবে। দিবাস্বপ্ন দেখেতো লাভ নেই। তারা দিবাস্বপ্ন দেখতে পারেন এরকম দিবাস্বপ্ন ও গণজোয়ারের কথা জাতীয় নির্বাচনের আগেও তারা বলেছে, কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন। কারচুপি হলে সরকার পতনের আন্দোলনে ডাক দেবেন এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, মির্জা আব্বাসের মনে যে কি আছে তা আমরা কেউ জানি না। কেবিনেট বৈঠকে প্রথম আলো ইস্যুতে কোনো আলোচনা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা আদালতের বিষয়। আমরা এই ইস্যুতে কিছু বলতে চাই না। এটা আদালতের বিষয়, আদালত যদি জামিন দেন দেবে। জামিন দেয়ার এখতিয়ার আদালতের। বিচার বিভাগ স্বাধীন কর্তৃত্বপূর্ণ, তাদেও যে ক্ষমতা রয়েছে সেখানে আমাদের সরকার বা দলের কিছু বলার নেই। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা বাস্তবায়নের জন্য কি কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা আদালতের বিষয়। গ্রেপ্তারি পারোয়ানা আদালত থেকে দিয়েছে। এ বিষয়ে আমাদের কিছু বলার নেই। যা হবে আদালতে হবে। জামিন দিলেও আদালত দেবে, মুক্তি দিলেও আদালত দেবে। সরকারের এখানে ইচ্ছা অনিচ্ছার কোনো ব্যাপার নেই। আমরা কেন এখানে জড়াতে যাবো। এটাতো সরকারের সঙ্গে তাদের দ্বন্দ্বের কোনো কিছু নেই। এটা একটা ঘটনা ঘটেছে। তার পরিপ্রেক্ষিতে মামলা হয়েছে। তার ভিত্তিতে আদালত গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন। তারা আবার জামিন নিয়েছেন। এটা সম্পূর্ণ আদালতের বিষয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর