× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার

করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে বিহার ও কলকাতায় ২ রোগীকে পর্যবেক্ষণ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৭ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার, ৫:৫৮

ভারতের কলকাতা ও বিহারে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে দুই রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তবে তারা আদতেই আক্রান্ত কিনা সে বিষয়ে এখনো নিশ্চিত নয় কর্তৃপক্ষ। রোগীদের মধ্যে একজন চীনা নাগরিক ও আরেকজন ভারতীয় যিনি সম্প্রতি চীন সফর করেছেন। এ খবর দিয়েছে দ্য হিন্দুস্তান টাইমস ও আউটলুক ইন্ডিয়া।
খবরে বলা হয়, কলকাতায় এক চীনা নারীকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে অন্যান্য রোগীদের চেয়ে পৃথক একটি ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। তার নাম হু মাই (২৮)। রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগ তাকে পরীক্ষা করে দেখেছে।
স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের পরিচালক দেবাশীষ ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, তিনি স্থিতিশীল আছেন। তার মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ দেখা যায়নি।
প্রসঙ্গত, মাই ছয় মাস আগে চীন ছেড়েছেন। সেখান থেকে নামিবিয়া, মাদাগাস্কার ও মরিশাস ভ্রমণ করে ভারত গেছেন। ভারতে পৌঁছে কিছুটা অসুস্থ বোধ করলে স্থানীয় এক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যান। সেখান থেকে তাকে রোববার তাকে একটি রাষ্ট্র পরিচালিত হাসপাতালে যেতে পরামর্শ দেয়া হয়। কলকাতা পৌরসভা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, চিকিৎসকরা মাইয়ের মধ্যে করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ পায়নি।
এদিকে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, সোমবার বিহারে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে এক নারীকে জোর করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ২৯ বছর বয়সী ওই নারী গত সপ্তাহে চীনের তিয়ানজিন সফর করে ফিরেছেন। ফিরে আসার কয়েকদিন পর তার হালকা সর্দি-কাশি দেখা দেয়। চিকিৎসা করাতে এক হাসপাতালে গেলে তাকে রাষ্ট্র পরিচালিত পাটনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তিনি অভিযোগ করেছেন, তাকে জোর করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নন। তার শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিক রয়েছে। তবে বিহারে করোনাভাইরাস পরীক্ষার সরঞ্জাম নেই। তার রক্ত অন্য একটি হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর