× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার

মেধাবীদের আকৃষ্ট করতে জনসনের নতুন অভিবাসন পরিকল্পনা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৮ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:৫৯

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বেরিয়ে গেলেও মেধাবী, বিশেষ করে বিজ্ঞানী ও গণিতবিদদের জন্য খোলা থাকবে বৃটেন। বৃটেন ইইউ’র সদস্য হওয়ায় ইইউ নাগরিকরা এতদিন অবাধভাবে দেশটিতে বাস করার সুযোগ পেতেন। তবে ৩১শে জানুয়ারি থেকে সে সুযোগ বন্ধ হয়ে যাবে। সেদিন ইইউ থেকে বেরিয়ে যাবে বৃটেন। তবে এর আগ দিয়েই নতুন অভিবাসন পরিকল্পনা ঘোষণা দেয়ার কথা জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ইইউ’র বাইরের নাগরিকদের জন্য আগে থেকেই এরকম একটি ব্যবস্থা চালু রয়েছে। এ খবর দিয়েছে দ্য ডেইলি মেইল ও দ্য টাইমস।
খবরে বলা হয়, বৃটেনে অভিবাসনের জন্য পয়েন্টভিত্তিক ব্যবস্থা চালু করবেন জনসন। এতে দেশটিতে অভিবাসীর সংখ্যা ব্যাপক হারে কমে যাবে।
ইইউ’র বাইরের নাগরিকদের জন্য ইতিমধ্যে এক ধরনের পয়েন্টভিত্তিক ব্যবস্থা চালু রয়েছে। সোমবার বিশ্বজুড়ে মেধাবীদের আকৃষ্ট করতে ‘বৈশ্বিক প্রতিভা’ ভিসা পরিকল্পনা বিষয়ে ঘোষণা দেয়ার কথা রয়েছে জনসনের। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সে ঘোষণা দেয়া হয়নি।
নতুন পরিকল্পনাটি নিয়ে রোববার জনসন বলেন, বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের ক্ষেত্রে বৃটেনের গর্ব করার মতো ইতিহাস রয়েছে। তবে ভবিষ্যতে এ ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিতে ও প্রতিবন্ধকতা সামলাতে আমাদের নতুন প্রতিভা ও গবেষণায় বিনিয়োগ করে যেতে হবে। এজন্যই, ইইউ ছেড়ে যাওয়ার সময়, আমি একটি বার্তা পাঠাতে চাই যে, বৃটেন বিশ্বের প্রতিভাবানদের জন্য খোলা রয়েছে। তাদের চিন্তাকে বাস্তবে রূপদানে সহায়তা করতে প্রস্তুত রয়েছে।
ডেইলি মেইল জানায়, আগামী ৩১শে জানুয়ারি ইইউ থেকে বৃটেনের বিচ্ছেদ বা ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে। বৃটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তাদের অনুমানে নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে বৃটেনে ইউরোপ থেকে যাওয়া অভিবাসীর সংখ্যা ৮০-৯০ শতাংশ কমে যাবে। গত বছর ইউরোপ থেকে বৃটেনে অভিবাসনকারীর সংখ্যা ছিল ২ লাখ। নতুন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের পর তা ২০ হাজারে কমে আসতে পারে।
নতুন ব্যবস্থা নিয়ে একটি সূত্র জানায়, বিশ্বের অন্যান্য অংশ থেকে বৃটেনে যাওয়া কতটা কঠিন, এটা তারই চিত্র। এটা আরো প্রমাণ করে যে, ইইউ থেকে যাওয়া বেশির ভাগ অভিবাসীই স্বল্প-দক্ষ। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, মন্ত্রীরা নতুন পয়েন্টভিত্তিক ব্যবস্থা চালু করতে পুরোপুরি প্রস্তুত। সোমবার বৃটেনের স্বাধীন অভিবাসন উপদেষ্টা কমিটি (এমএসি) নতুন পয়েন্টভিত্তিক ব্যবস্থাপনাটি নিয়ে প্রস্তাব জমা দেয়ার কথা রয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি পাটেল জানিয়েছেন, স্বল্প-দক্ষতার কাজের জন্য সস্তা অভিবাসনের ওপর আর নির্ভর করতে পারবে না।
ডেইলি মেইল জানায়, নতুন ব্যবস্থার আওতায় পর্যাপ্ত পয়েন্ট পেলে তবেই অভিবাসন মিলবে বৃটেনে। বেতন, দক্ষতা, বয়স ও ইংরেজি বলার ক্ষমতার ওপর নির্ভর করে পয়েন্ট যাচাই করা হবে। বর্তমানে সেখানে কাজ করার জন্য ৩০ হাজার পাউন্ডের চাকরির প্রস্তাবের যে নিয়ম রয়েছে তা বাতিল করে দেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর