× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেট
ঢাকা, ৪ এপ্রিল ২০২০, শনিবার

আজ সার্ক নেতাদের ভিডিও কনফারেন্সে নেতৃত্ব দেবেন মোদি

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১৫ মার্চ ২০২০, রবিবার, ১:০০

মারণ নোভেল করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় একজোট হয়ে শক্তিশালী কৌশল রচনার জন্য সার্কভুক্ত দেশগুলির নেতাদের ভিডিও কনফারেন্সে নেতৃত্ব দেবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রস্তাবিত সার্ক নেতাদের এই ভিডিও কনফারেন্স আজ বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার রাতে এক টুইট বার্তায় ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার এই খবর জানিয়েছেন। তিনি তার বক্তব্যের আগে হেডিং দিয়ে  লিখেছেন, ‘সকলের ভালোর জন্য একত্রিত হওয়া’। সেই সঙ্গে তিনি একটি পোস্টারও যুক্ত করেছেন। তাতে সার্কের সব দেশের পতাকা রয়েছে। নীচে লেখা হয়েছে নজির গড়ার উদ্যোগ। আর সব শেষে  উল্লেখ করা হয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দেয়া প্রতিবেশী প্রথম (নেইবারহুড ফার্স্ট) স্লোগানটি।
জানা গেছে, এই ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেবেন বাংলাদেশ, নেপাল, আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ ও ভুটানের রাষ্ট্রীয় নেতারা। একমাত্র পাকিস্তানের হয়ে এই কনফারেন্সে প্রতিনিধিত্ব করবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা। শনিবার সারাদিন ধরে কূটনৈতিক স্তরে সব সার্ক দেশের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমেই ভিডিও কনফারেন্সের তারিখ ও সময় ঠিক করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে পর পর দু’টি টুইটে ভারতের প্রধানমন্ত্রী প্রথম বলেছেন, আমাদের গ্রহটি এখন করোনা ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করছে। বিভিন্নভাবে সরকারগুলো ও দেশের জনগণ করোনা মোকাবিলায় সর্বোচ্চ শক্তি ব্যয় করছে। দক্ষিণ এশিয়া এমন এক অঞ্চল যেখানে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষের বাস। তাই আমাদের উচিত তাদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে সব ধরণের প্রচেষ্টা চালু রাখা। এরপরই তিনি সার্ক নেতাদের মধ্যে ভিডিও কনফারেন্স আয়োজনের প্রস্তাব করে লিখেছেন, আমি প্রস্তাব উত্থাপন করতে চাই যে, সার্ক নেতৃত্বের  উচিত একজোট হয়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শক্তিশালী কৌশল নির্ধারণ করা। আমরা এ আলোচনা করতে পারি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে। আমরা বিশ্বের কাছে একটি উদাহরণ সৃষ্টি করতে পারি। এই প্রস্তাবের সমর্থনে প্রথম টুইট করেছেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী গোটাবায়া রাজাপাকসে। এরপরই একে একে সার্কভুক্ত অধিকাংশ দেশের প্রধানরা টুইট করে মোদির প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছেন। শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে টুইটে বলেন, শ্রীলঙ্কা প্রস্তাবিত আলোচনায় যোগ দিতে প্রস্তুত। পরিস্থিতির মোকাবিলায় একে অন্যের কাছ থেকে শিখতে তৈরি। আসুন, আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হই। মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহম্মদ সোলি এই দারুণ উদ্যোগের জন্য মোদিকে ধন্যবাদ জানিয়ে টুইটে লিখেছেন, মালদ্বীপ এই প্রস্তাবকে স্বাগত জানাচ্ছে। এই আঞ্চলিক উদ্যোগকে পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি। প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়ে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি বলেছেন, হাতে হাত মিলিয়ে কাজে নামতে তার সরকার প্রস্তুত। ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিংও এক টুইট বার্তায় বলেছেন, এটাই নেতৃত্ব। আপনার নেতৃত্বে কাজ হবে। আমার এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমও টুইট করে মোদির প্রস্তাবকে সমর্থন জানিয়েছেন। শুক্রবার রাতে পাকিস্তানের পক্ষ থেকেও ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেবার কথা জানানো হয়েছে। শনিবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আয়শা ফারুকি বলেছেন, করোনা ভাইরাসের মতো ভয়াবহ মহামারিকে মোকাবেলা করতে বৈশ্বিক ও আঞ্চলিক পর্যায়ে সমন্বিত চেষ্টা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা আমাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে ড. জাফর মির্জা এতে প্রতিনিধিত্ব করবেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর