× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেট
ঢাকা, ৪ এপ্রিল ২০২০, শনিবার

করোনা অস্থিরতায় এমঅ্যান্ডএসের উদ্যোগ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ মার্চ ২০২০, রবিবার, ১২:৫৩

করোনা সংক্রমণে বিশ্ববাজারে শুরু হয়েছে এক অস্থিরতা। শেয়ারবাজারে দেখা দিয়েছে ধস। আর খুচরা বিক্রেতাদের দোকানে উপচেপড়া ভিড়। অনেকে নিত্যপণ্য কিনতে হিমশিম খাচ্ছেন। এমন অবস্থায় মানুষ যাতে দুর্ভোগের শিকার না হয়, সেজন্য এক ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে লন্ডনভিত্তিক বৃটেনের বহুজাতিক খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান মার্কস অ্যান্ড স্পেন্সার গ্রুপ (এমঅ্যান্ডএস)। খাদ্য ও অন্যান্য পণ্য কিনতে ঝুঁকিতে থাকা মানুষ ও প্রবীণ ক্রেতাদের জন্য তারা সময় নির্ধারণ করে দিয়েছে। বলা হয়েছে, প্রতি সোমবার ও বৃহস্পতিবার এসব মানুষের জন্য বেচাকেনার প্রথম ঘন্টা সংরক্ষিত থাকবে। অর্থাৎ ওই সময়ে শুধু এসব মানুষের কাছে তারা খাদ্য ও অন্যান্য পণ্য বিক্রি করবে।
জাতীয় স্বাস্থ্য বিষয়ক স্কিমের সঙ্গে যুক্ত এবং জরুরি সেবার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের জন্য বাণিজ্যের প্রথম ঘন্টাকে সংরক্ষিত রাখা হয়েছে। সব রকম ক্রেতা যাতে তাদের কাছ থেকে চাহিদা মতো পণ্য নিতে পারেন এজন্য অস্থায়ী ভিত্তিতে তারা কিছু কিছু ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। কিছু পণ্যের জন্য অপ্রত্যাশিত চাহিদা রয়েছে। এর প্রেক্ষিতে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তারা এক বিবৃতিতে বলেছে, উদ্ধৃত পণ্য যাতে স্থানীয় পর্যায়ের যথাযথ দাতব্য সংস্থার কাছে পৌঁছে দেয়া যায় তা সহজ করতে এ বছরে এমঅ্যান্ডএস চালু করেছে একটি অ্যাপ। এতেই যথেষ্ট নয়। তাই বিশেষ করে করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন এমন ব্যক্তিদের সহযোগিতার জন্য এমঅ্যান্ডএস চালু করছে ‘নেইবারলি কমিউনিটি ফান্ড’। এমঅ্যান্ডএস ব্যাংক, এমঅ্যান্ডএস এনার্জিসহ এমঅ্যান্ডএস পরিবারের সবাই এই তহবিলে সহযোগিতা করছেন। এর মাধ্যমে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা মানুষের সহায়তায় কাজ করা স্থানীয় কমপক্ষে ১০০০ দাতব্য সংস্থার জন্য সহায়ক হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর